খুলনায় ওজোপাডিকোর বিরুদ্ধে আন্দোলনের প্রস্তুতি গ্রাহকদের

খুলনা প্রতিনিধি>
‘প্রি-পেইড মিটার নিয়ে জনমনে ক্ষোভ, সমাধানে ওজোপাডিকোর নেই কোন উদ্যোগ’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা থেকে প্রি পেইড মিটারে বিদ্যমান দুর্নীতি প্রতিরোধে সংগ্রাম কমিটি গঠিত হয়েছে। এ কমিটি গঠনের মধ্যদিয়ে ওয়েষ্ট জোন পাওয়ার ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানীর দুর্নীতি-অনিয়মের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলেও বক্তারা জানিয়েছেন। আন্দোলনের প্রাথমিক ধাপ সংবাদ সম্মেলন ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময়ের পর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এ আন্দোলনে খুলনার পাশাপাশি বাগেরহাট ও সাতক্ষীরাসহ যেসব এলাকা নতুন করে প্রি-পেমেন্ট মিটারিংএর আওতায় আসছে সেসব এলাকার বাসিন্দাদেরও সম্পৃক্ত হওয়ার আহবান জানানো হয়। সোমবার সকালে নগরীর বিএমএ’র সেমিনার কক্ষে নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগের উদ্যোগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিএমএ খুলনার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডা: শেখ বাহারুল আলমের সভাপতিত্বে ও জনউদ্যোগ খুলনার সদস্য সচিব মহেন্দ্রনাথ সেনের পরিচালনায় এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, বৃহত্তর আমরা খুলনাবাসীর চেয়ারম্যান শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন, নারীনেত্রী শামীমা সুলতানা শেলু, গ্লোবাল খুলনার আহবায়ক শাহ মামুনুর রহমান তুহিন, বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির নেতা আলহাজ মহিউদ্দিন আহমদ, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান পারভেজ, পোল্ট্রি ফিস ফিড মালিক সমিতির নেতা এসএম সোহরাব হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা মোড়ল নুর মোহাম্মদ, নিরাপদ সড়ক চাই-নিসচা’র জেলা সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় সদস্য এসএম ইকবাল হোসেন বিপ্লব, নাগরিক নেতা সৈয়দ ইমাম হোসেন বাচ্চু, জেসমিন জামান, কামরুল কাজল, আশরাফ হোসেন, মানবাধিকার কর্মী জি এম রাসেল ইসলাম, খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক কোষাধ্যক্ষ এইচ এম আলাউদ্দিন প্রমুখ। সভা থেকে গ্রাহকদের কাছ থেকে নেয়া দু’শ কোটি টাকার রিবেট দু’কোটি টাকা ফেরত দেয়া, সফটওয়ার জটিলতা দূর করা, মিটার ভাড়া না নেয়া, ভ্যাট জটিলতা দূর করা, মিটার লক হয়ে গেলে বিনা পয়সায় সচল করে দেয়া, মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে প্রি-পেইড গ্রাহকদের হয়রানী বন্ধ করা, ‘নো ট্রেস’ বিলের নামে পুরনো অন্যের বিল বর্তমান গ্রাহকদের ওপর চাপিয়ে না দেয়া, দুর্নীতির মাধ্যমে কোম্পানী সচিবের চাকরীর মেয়াদ ৫ বছর বৃদ্ধি এবং কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের একাধিক গাড়ি ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যবস্থা করা, প্রকল্পের নামে হাজার কোটি টাকা খরচ করা হলেও এর সুফল গ্রাহকরা কেন পাচ্ছে না সে বিষয়ে কোম্পানী কর্তৃপক্ষকে জবাবদিহিতার আওতায় আনা, সংশ্লিষ্ট নন এমন ব্যক্তিদের বিদেশ সফরের নামে কোম্পানাী ও ঠিকাদারদের টাকা নষ্ট করার বিষয়গুলো তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়।