ভুয়া পিবিআই ইন্সপেক্টর রিপনের বিরুদ্ধে মামলা, রিমান্ড আবেদন করা হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোরে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) এর ভুয়া ইন্সপেক্টর জিএম বুলবুল কবির রিপন ওরফে রনির (৪০) বিরুদ্ধে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা হয়েছে। সদর উপজেলার ডুমদিয়া গ্রামের বারিক বিশ্বাসের ছেলে সাজ্জাদুল ইসলাম (৫০) বাদী হয়ে গত সোমবার রাতে মামলাটি দায়ের করেন।
সাজ্জাদুল ইসলামের ছেলে শাকিবুল ইসলাম এবং তার বন্ধু ফিরোজ খান শরৎ ও সাজুকে নিয়ে গত ৮ জুন বেনাপোলে বোনের বাড়িতে যাওয়ার পথে পিবিআই ইন্সপেক্টর পরিচয়দানকারী প্রতারক জিএস বুলবুল কবির রিপন ওরফে রনির খপ্পরে পড়েছিলেন। এ সময় প্রতারক তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে মোটরসাইকেল ও দুটি মোবাইল ফোন সেট কেড়ে নেন। পরে ভুয়া পিবিআই ইন্সপেক্টর রিপনকে বিকাশের মাধ্যমে ৪ হাজার টাকা দিলে তিনি শাকিবুল ইসলাম বন্ধু ফিরোজ খান শরতের মোটরসাইকেল ও মোবাইল ফোন ফেরত দেন। কিন্তু চাহিদামতো টাকা না দেওয়ায় শাকিবুল ইসলামের দামি মোবাইল ফোন সেট নিয়ে চলে যান। এরপর সাজ্জাদুল ইসলাম পিবিআই ইন্সপেক্টর ভেবে প্রতারক রিপনের কথা মতো গত সোমবার যশোর শহরে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর কার্যালয়ের সামনে ৫ হাজার টাকা দিয়ে ছেলের মোবাইল ফোন সেট ফেরত নিতে আসেন। এ সময় প্রতারকের জারিজুরি ফাঁস হয়ে যায়। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সদস্যরা প্রতারক জিএম বুলবুল কবির রিপন ওরফে রনিকে আটক করে পিবিআই কর্মকর্তাদের হাতে তুলে দেন। এদিন রাতেই সাজ্জাদুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন।
অপরদিকে আটক জিএম বুলবুল কবির রিপন ওরফে রনিকে মঙ্গলবার আদালতে সোপর্দ করলেও তার রিমান্ড আবেদন জানানো হয়নি। এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের এসআই পলাশ বিশ্বাস জানান, ঘটনার সাথে একজন জড়িত থাকায় তার রিমান্ডের আবেদন জানাননি।