আদুরী নিয়ে যত কান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক>
যশোর সদর উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের খরিচাডাঙ্গা গ্রামের লোকজন আদুরী সরকার নামে এক নারীর কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। প্রতিবাদ করায় আদুরী সরকার গ্রামের ৭ জনের বিরুদ্ধে কোতয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ শতাধিক নারী-পুরুষ মঙ্গলবার দুপুরে থানায় এসে এর প্রতিবাদ জানিয়েছে।
খরিচাডাঙ্গা গ্রামের পরিতোষ বিশ্বাস, গৌতম বিশ্বাস, উজ্জল বিশ্বাস, বিপুল বিশ্বাসসহ আরও কয়েকজন অভিযোগ করেন, তাদের সম্প্রদায়ের অরবিন্দু সরকার ২ বছর আগে মারা গেছেন। কিন্তু স্বামী মারা যাওয়ার পর আদুরী সরকার বেপরোয়া চলাফেরা করছেন। তিনি বিয়ে না করেও শহরে ঘর ভাড়া নিয়ে ব্রজেন বিশ্বাস নামে এক যুবকের সাথে স্বামী-স্ত্রীর মতো বসবাস করছেন। মাঝে মধ্যে তারা দু জনে গ্রামে আসছেন। এর ফলে গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের সামাজিক পরিবেশ কলুষিত হচ্ছে। প্রতিবাদ করায় আদুরী সরকার গ্রামের লোকজনের বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছেন।
এদিকে দুপুরে উভয়পক্ষকে নিয়ে থানায় বসেন ওসি অপূর্ব হাসান। এ সময় আদুরী সরকার ও ব্রজেন বিশ্বাস ওসিকে জানান, তারা বিয়ে করেছেন। নীলগঞ্জ মন্দিরে গিয়ে তারা বিয়ে করেন। এ সময় খরিচাডাঙ্গা গ্রাম থেকে আসা নারী-পুরুষের জানান, তারা এ বিয়ে মানেন না। তারা সামাজিক বিয়েতে বিশ্বাসী। আদুরী সরকার ও ব্রজেন বিশ্বাস সামজিকভাবে বিয়ে করলে সেটি তারা মেনে নেবেন। অন্যথায় তারা দু জনকে একসাথে গ্রামে ঢুকলে প্রতিহত করবেন। ফলে উভয়পক্ষের বক্তব্য শোনার পর ওসি অপূর্ব হাসান পূজা উদযাপন পরিষদের নেতা দুলাল সমাদ্দারসহ গণ্যমান্য কয়েকজনকে এ বিষয়টি মীমাংসার জন্য দায়িত্ব দেন।