বিশ্বকাপ থেকে উইন্ডিজের বিদায়

::স্পন্দন ডেস্ক::
ভারতে সঙ্গে হেরে এভারের বিশ্বকাপ আসর থেকে তৃতীয় দল হিসেবে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেল উইন্ডিজের। ভারতের দেয়া ২৬৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শামি, বুমরাহ, যুজবেন্দ্র চাহালের বোলিংয়ের সামনে ১৪৩ রানে গুটিয়ে যায় ক্যারিবীয়দের ইনিংস। ফলে ১২৫ রানের বিশাল জয় পায় বিরাট কোহলিরা।

প্রথম ছয় ম্যাচ থেকে মাত্র ৩ পয়েন্ট থাকায়, টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে শেষের তিনটি ম্যাচই জিততে হতো উইন্ডিজের। কিন্তু ভারতের বিপক্ষে সে তিন ম্যাচের প্রথমটিতেই মুখ থুবড়ে পড়েছে জেসন হোল্ডারের দল।

অন্যদিকে ৬ ম্যাচ শেষে এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপে অপরাজিতই রইল ভারত। তাদের সংগ্রহে রয়েছে ১১ পয়েন্ট। আর মাত্র ১টি পয়েন্ট হলেই নিশ্চিত হবে সেমিফাইনালের টিকিট।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়। সরাসরি সম্প্রচার করে গাজী টিভি, মাছরাঙা চ্যানেল ও চ্যানেল ওয়ান।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি ভারত। দলীয় ২৯ রানে সাজঘরে ফিরে গেলেন ভারতের হিটম্যানখ্যাত ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা। ব্যক্তিগত ১৮ রানে ক্যারিবীয় পেসার কেমার রোচের বলে শাই হোপের হাতে ধরা পড়েন তিনি।

অর্ধশত থেকে মাত্র ২ রান দূরত্বে ব্যক্তিগত ৪৮ রানে থামেন ভারতীয় ওপেনার লোকেশ রাহুল। দলীয় ৯৮ রানে ক্যারিবীয় অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের বলে বোল্ড আউট হন তিনি। এক চার ও এক ছয়ে সাজানো ছিল রাহুলের ইনিংস।

এরপর ইনিংসের ২৭ ওভারের ১ম বলের বিজয় শঙ্কর ও ২৯তম ওভারের শেষ বলে কেদার যাদবকে ক্যাচ আউট করেন কেমার রোচ। দু’টি ক্যাচই ধরেন শাই হোপ। বিজয় ১৪ ও কেদার যাদব ৭ রান করে সাজঘরে ফিরেন।

দলীয় ১৮০ রানে ফিফটি করে সাজঘরে ফিরেন ভারতের মূল ভরসা বিরাট কোহলি। ব্যক্তিগত ৭২ রানে জেসন হোল্ডারের বলে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামা ড্যারেন ব্রাভোর হাতে ধরা পড়েন তিনি। সেই সাথে চলতি বিশ্বকাপে নিজের চতুর্থ ও সবমিলিয়ে ৫৩তম ওয়ানডে ফিফটি করেন কোহলি।

কোহলির আউটের পর হাল ধরেন অভিজ্ঞ এমএস ধোনি। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান হার্দিক পান্ডিয়াও। ৫ চারে ৩৮ বলে ৪৬ রান করে পান্ডিয়া ফেরত গেলেও উইকেটের আরেক প্রান্তে অপরাজিত থাকেন ধোনি। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে ধোনির ৬১ বলে ৫৬ রানের উপর ভর করে ২৬৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় ভারত। অর্থাৎ ২৬৯ রানের লক্ষ্য দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামবে উইন্ডিজ।

উইন্ডিজের হয়ে ১০ ওভার বল করে মাত্র ৩৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নেন কেমার রোচ। ১০ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে ২ উইকেট পান উইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ১০ ওভার বল করে ৫০ রান দিয়ে ২ উইকেট পান আরেক পেসার শেলডন কটরেল।

২৬৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে দলীয় ১০ রানেই প্রথম উইকেট হারায় উইন্ডিজ। ক্যারিবীয় শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন ভারতীয় বোলার মোহাম্মদ শামি। তার বোলিংয়ে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ‘দা ইউনিভার্স বস’ ক্রিস গেইল। ব্যক্তিগত ৬ রানে কেদার জাদবের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান এ ভয়ঙ্কর ব্যাটসম্যান।

এরপর সেই শামিই ফেরান ৫ রান করা শাই হোপকে সরাসরি বোল্ড আউট করে। ৩১ রান করা আরেক ওপেনার সুনিল অ্যাম্ব্রিসকে ফেরান হার্দিক পান্ডিয়া। তরুণ ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরানকে শামির তালুবন্দি করে প্যাভিলিয়নে ফেরান কুলদীপ জাদব। আউট হওয়ার আগে ২৮ রানের ইনিংস খেলেন পুরান।

এরপর শিমরন হেটমায়ার (২৯ বলে ১৮), জেসন হোল্ডার (১৩ বলে ৬), কার্লোস ব্রাথওয়েট (৫ বলে ১), ফ্যাবিয়ান এলেন (১ বলে শূন্য), শেলডন কটরেল (৮ বলে ১০) ও ওশেন থমাস (১১ বলে ৬) ধারাবাহিকভাবে আউট হন। ফলে শেষ পর্যন্ত ১৩৪ রানের বেশি করতে পারেনি তারা। কেমার রোচ ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

ভারতের পক্ষে বল হাতে উইকেটের দেখা পেয়েছেন স্বীকৃত বোলারদের সবাই। এর মধ্যে মোহাম্মদ শামি ৪, ইয়ুজভেন্দ্র চাহাল ২, জাসপ্রিত বুমরাহ ২, হার্দিক পান্ডিয়া ১ ও কুলদ্বীপ যাদভ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।