যশোর জেলা শিল্পকলা একাডেমির বার্ষিক সাধারণসভা

::নিজস্ব প্রতিবেদক::
যশোর জেলা শিল্পকলা একাডেমির বার্ষিক সাধারণসভা শুক্রবার সন্ধ্যায় একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। একাডেমি পরিচালনা পরিষদের সহসভাপতি অধ্যাপক সুকুমার দাসের সভাপতিত্বে সভার বার্ষিক রির্পোট পেশ করেন এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্চলনা করেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মাহামুদ হাসান বুলু। এ সময় পরিচালনা পরিষদের সদস্যসহ শতাধিক সাধারণ সদস্য উপস্থিত ছিলেন এবং রির্পোর্টের উপর মতামত ব্যক্ত করেন।

একাডেমি মিলনায়তন সংস্কার কাজ সম্পন্ন না হলেও সাজানো গোছানো এই মিলনায়তনে সভা করার জন্যে কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানান সভায় উপস্থিত সাধারণ সদস্যরা। সভায় নেতৃবৃন্দ জানান শীতাতপ নিয়ন্ত্রিতসহ আধুনিকমানের এই মিলনায়তনটি আগামী ২ মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গরুপে চালু হবে। এবং নির্বাহী কমিটি নির্ধারণ করবে ভাড়া। ভাড়া দেয়ার আগে জামানত রাখা না রাখার বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে। মিলনায়তনটি পরিপূর্ণভাবে চালু হলে ঋতু ভিত্তিকসহ সকল অনুষ্ঠান নিয়মিত করা হবে বলে জানানো হয়। নেতৃবৃন্দ জানান ২০২০ সালের মুজিববর্ষ পালনের একরকম প্রস্তুতি শুরু হয়েছে তবে কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা পেলে সে অনুযায়ী কাজ করা হবে। এছাড়া বার্ষিক কর্মসূচিতে চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের জন্মদিন পালনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হয়।

আলোচনায় অংশ নেন একাডেমির সদস্য রাইটস্ যশোরের নির্বাহী পরিচালক বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক, সাংস্কৃতিকজন হারুন অর রশিদ, অ্যাড চুনুœ সিদ্দিকী, ড. শাহানাজ পারভিন, বাসস ও বেতার প্রতিনিধি সাজ্জাদ গনি খাঁন রিমন. গাজী টিভির জেলা প্রতিনিধি তহীদ মনি, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি মনিরুল ইসলাম, প্রতিদিনের কথার বার্তা সম্পাদক এইচ আর তুহিন, গ্রামের কাগজের সহকারি সম্পাদক জাহিদ আহমেদ লিটন, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক যোগেষ দত্ত, সাংস্কৃতিক সংগঠন স্পন্দনের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

পরিচালনা পরিষদের সহসভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক রওশন আরা রাসু, চঞ্চল সরকার, কালচারাল অফিসার হায়দার আলী, নির্বাহী সদস্য সানোয়ার আলম খান দুল, শাহারিয়ার বাবু, সরোয়ার হোসেন ও আশিষ মুখার্জি মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। একাডেমির বর্তমান কমিটির প্রথম এ সভা ছিল মোটামুটি প্রাণবন্ত। পরিচালনা পরিষদের নেতৃবৃন্দ জানান আগামীতে জেলা সকল সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডসহ শিল্পী,কবি সাহিত্যিকদের কেন্দ্রবিন্দু হবে শিল্পকলা একাডেমি।