যোগ্য ব্যক্তিরাই নেতৃত্বের আসনে বসবেন: শেখ আফিল উদ্দিন এমপি

::শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল::
যশোর-১ (শার্শা) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিশাল এক বটবৃক্ষ। তাই বিশাল এ দলের মধ্যে অনেক বিজ্ঞ ব্যক্তি আছেন যারা দলের পদ-পদবি বহন করার যোগ্যতা রাখেন। তবে দল যাকে উপযুক্ত মনে করবেন সেই আসবেন নেতৃত্বের আসনে।

শুক্রবার বিকেলে শার্শা উপজেলার শার্শা ইউনিয়নের শার্শা ওয়ার্ডের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে নিজ ওয়ার্ডের বাসিন্দা হিসেবে নাগরিক সারি থেকে উঠে এসে একথা বলেন তিনি।

শার্শা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কওছার আলীর সভাপতিত্বে ও ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে শেখ আফিল উদ্দিন এমপি আরো বলেন, চলমান ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে যেনো আর কোনো হাইব্রিড নেতার জন্ম না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। মনে রাখতে হবে যাদের শরীরে আওয়ামী লীগের রক্ত বিরাজমান, যারা কখনো দলছুট হয়নি যারা আওয়ামী লীগকে মনেপ্রাণে ভালোবাসেন তাদের কমিটিতে রাখতে হবে। অনেক আওয়ামী লীগার আছে যারা দলকে অন্ধের মতো ভালোবেসে বিএনপি-জামায়াত শাসনামলে তাদের অত্যাচারে বাড়ি ছাড়া হয়েছেন। অর্থহীন হয়েছেন। গোয়ালের গরু ধরে নিয়ে গেছে বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীরা। মাঠের পাকা ধান পর্যন্ত ছাড়েনি। তারপরেও শত আঘাতকে সহ্য করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। তাদের মনে রাখতে হবে।

এ সময় সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন আরো বলেন, দলের সুসময় এসেছে। তাই সুবিধাভোগীর সংখ্যাও অনেক বেশি। অনেকের আবার দাপটও বেশি। তাই অনেক দলভক্ত মানুষ আছে যারা দাপটওয়ালাদের ভয়ে দলের পদ-পদবির মনোনয়ন নিতে ভয় পাচ্ছেন। একথাটি ভাবার কোনো অর্থ নেই। বিশেষ করে শার্শা উপজেলার মাটিতে কতটি আওয়ামী লীগের মানুষ আছে এবং কে কিভাবে জীবনযাপন করছেন। আওয়ামী লীগের প্রতি কার মমতা কতটুকু তা আমার সবই জানা। তাই ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে একক প্রার্থীর নাম ঘোষণা আসলেও চিরুনি অভিযানের মতো আমি সঠিকভাবে নেতা নির্বাচন করতে সচেষ্ট থাকব। এখানে কারো কোনো সুপারিশ গ্রহণযোগ্য হবে না। প্রয়োজনে দলীয় মনোনয়নের বাইরে থেকেও সঠিক নেতা নির্বাচন করা হবে। মনে রাখতে হবে, তৃর্ণমূলের কমিটিই দলের প্রাণ। তাই বারবার যাচাই করে তৃণমূলের কমিটি নির্বাচিত করতে হবে।

ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন শার্শা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ মোরাদ হোসেন।

এসময় বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন শার্শা উপজেলা বাস্তুহারালীগের সভাপতি আবুল হোসেন, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবলু, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন, আসাদুজ্জামান আসাদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর তালুকদার আযাদ, শার্শা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান প্রমুখ।

ওয়ার্ড সম্মেলনে নির্বাচনে তুহিনুর রহমান তুহিন মেম্বর ও বাবর আলী সভাপতি পদে এবং আব্দুল কাদের, আলী কদর ও বিদ্যুৎ সরকার সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এসময় গ্রাম কমিটির সভাপতি পদে খিদির বক্স এবং সাধারণ সম্পাদক পদে রফিকুল ইসলামের নাম প্রস্তাব করা হয়।