যে পাঁচ কারণে এবারও শিরোপা জেতা হবে না আর্জেন্টিনার

স্পন্দন স্পোর্টস ডেস্ক :

 

টানা তিনটি মেজর টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা নিশ্চয়ই যেকোনো দলের জন্য বড় এক প্রাপ্তি। তবে সেই সবগুলো ফাইনালেই আবার হার, যেকোনো দলের জন্য হতে পারে চরম হতাশার অধ্যায়। বিশেষ করে, দলের নামটা যদি হয় আর্জেন্টিনা আর সেই দলে খেলে থাকেন ফুটবল বিশ্বের অন্যতম বড় তারকা লিওনেল মেসি; তবে হতাশার মাত্রাটা তো আরো বেশি হওয়ারই কথা।

বেশি হয়েছিল বলেই বিশ্বকাপ আর টানা দুই কোপা আমেরিকার ফাইনাল হারে, অভিমানে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নিয়ে নেন মেসি। কিন্তু দেশের হয়ে শিরোপা জেতার তাড়নায় ফের আকাশি-সাদা জার্সিতে ফেরেন মেসি।

আর্জেন্টিনার হয়ে খেলেন ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ। সেখানেও দল আবার ব্যর্থ। বিদায় নেয় শেষ ১৬ থেকে। তবে এবার আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় নয়, জাতীয় দলের হয়ে কিছু জেতার ক্ষুধায় মেসি দলের সঙ্গেই থেকে যান।

এদিকে দেখতে দেখতে আরও একটি টুর্নামেন্টের ফাইনালের দ্বারপ্রান্তে আর্জেন্টিনা। এবার ব্রাজিলে হচ্ছে কোপার ৪৬তম আসর। আর ইতোমধ্যেই টুর্নামেন্টটির সেমিফাইনালে পৌঁছে গেছে আলবিসেলেস্তেরা। যেখানে তাদের জন্য অপেক্ষা করছে টুর্নামেন্টের হট ফেবারিট দল ব্রাজিল।

messi-copa

তবে সাম্প্রতিক ফর্ম দেখে সুপার ক্লাসিকোতে আর্জেন্টিনার পক্ষে বাজি ধরার লোক খুব কম। যদিও আর্জেন্টাইন সমর্থকরা আবারো আশায় বুক বেঁধেছে, হয়তো এবার তারা পেয়ে যাবেন পরম আকাঙ্ক্ষিত সেই মেজর টুর্নামেন্টের শিরোপা।

কিন্তু যে পাঁচটি কারণে এবারও মেসি ও তার আর্জেন্টিনা বঞ্চিত থাকতে পারে শিরোপা জয় থেকে সেগুলো একবার দেখে নেয়া যাক :

১. অতিরিক্ত মেসি নির্ভরতা : অভিষেকের পর থেকে কখনো ফর্মহীনতায় ভোগেননি লিওনেল মেসি। যতই সময় গড়িয়েছে ততই তিনি নিজেকে নিয়ে গেছেন সর্বকালের সেরাদের কাতারে। তার মতো একজন খেলোয়াড়কে দলে পাওয়া তাই যেকোনো দলের জন্যই সৌভাগ্যের। কিন্তু মেসির প্রতি অতিরিক্ত নির্ভরতা বরাবরই ভোগাচ্ছে আর্জেন্টিনাকে। এবারও যার ব্যক্তিক্রম নয়। আর এই অতিরিক্ত মেসি প্রীতি এবারো শিরোপা বঞ্চিত রাখতে পারে আলবিসেলেস্তেদের।

২. ছন্দহীন দল : শেষ ১০ আন্তর্জাতিক ম্যাচের ৪টিতেই হেরেছে আর্জেন্টিনা। বাকি ৬ ম্যাচের ১টিতে ড্র আর বাকি ৫ ম্যাচে জয়। আর্জেন্টিনার জয়গুলো এসেছে ইতালি, হাইতি, নাইজেরিয়া, মরোক্কো ও নিকারোগুয়ের বিপক্ষে। বিপরীতে তিন শক্ত প্রতিপক্ষ ক্রোয়োশিয়া (০-৩), ফ্রান্স (৪-৩) ও স্পেনের কাছে (৬-১) হেরেছে আর্জেন্টিনা। খালি চোখেই পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে, সেরা ছন্দে নেই আর্জেন্টিনা ফুটবল দল।

messi-copa

৩. ফেবারিট না হওয়া : এবারের কোপায় অংশ নেয়া দলগুলোর মধ্যে ফিফা র‍্যাংকিংয়ে তৃতীয় স্থানে আছে আর্জেন্টিনা, পুরো বিশ্বে এগারতম। বোঝাই যাচ্ছে, আর্জেন্টিনার এবারের দলটি খুব একটা শক্তিশালি নয়। অন্যদিকে ফিফা র‍্যাংকিংয়ের তৃতীয় স্থানে আছে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দী ব্রাজিল। কোপায় অংশ নেয়া দলগুলোর মধ্যে যা সেরা। সেলেসাওদের দলও বেশ শক্তিশালী। যে কারণে এবারের আসরের ফেবারিট ওই কুতিনহো-আলভেজদের ব্রাজিলই, আর্জেন্টিনা না।

৪. অনভিজ্ঞতা : গত এক যুগে আর্জেন্টিনা তাদের ইতিহাসের অন্যতম সেরা দলটাকেই পেয়েছিল। যাদের বলা হচ্ছিল আর্জেন্টিনার ‘সোনালি প্রজন্ম’। কিন্তু এই প্রজন্মও ব্যর্থ হয় আলবিসেলেস্তেদের শিরোপা এনে দিতে। হেরে যায় টানা তিন বড় আসরের ফাইনালে। এর মধ্যে অনেকে আবার নিয়ে ফেলেছেন অবসর। কেউ বা ফর্মহীনতায় বাদ পড়েছেন দল থেকে। এবারের কোপা আমেরিকায় তাই অনেকটা অনভিজ্ঞ দল নিয়েই এসেছে আর্জেন্টিনা। লিওনেল মেসি (১৩০), সার্জিও আগুয়েরো (৯০), নিকোলাস ওটামেন্ডি (৬০), ফুনেস মোরি (২৫) ও পাওলো দিবালা (২০) ছাড়া আর কারোরই নেই বিশের বেশি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা।

৫. প্রত্যাশার চাপ : ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা দল আর্জেন্টিনা। কিন্তু শেষ ২৬ বছর ধরে আন্তর্জাতিক কোনো জিততে পারেনি দলটি। ফুটবল পাগল আর্জেন্টিনার সমর্থকদের কাছে তাই একটি শিরোপা অর্জন হয়ে উঠেছে পরম আরাধ্যের বিষয়-বস্তু। এবারের টুর্নামেন্ট শুরুর আগে দল তেমন গোছানো না থাকলেও, ইতোমধ্যেই সেমির টিকিট নিশ্চিত করেছে আলবিসেলেস্তারা। যে কারণে আরও একবার দলকে ঘিরে সৃষ্টি হয়েছে প্রত্যাশা। আর এই বাড়তি প্রত্যাশাই ফের আর্জেন্টিনাকে শিরোপা বঞ্চিত রাখতে পারে।