মহেশপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ আহত ৩৫

::কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি::

বুধবার সকাল ৯টার দিকে কালীগঞ্জ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়কের কাটাখালি নামক স্থানে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ৩৫জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহতদেরকে কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রতক্ষ্যদর্শিরা জানান, সকালে কালিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা গাজী মান্নান ডিলাক্স নামের শাপলা পরিবহন (যশোহর-জ-১১-০০৬৮) এবং দর্শনা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী রয়েল পরিবহন (ঢাকা-ব-১৫-১৯৭৮) একে অপরের পাশ দিতে যেয়ে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় শাপলা পরিবহন রাস্তার পাশের গাছে যেয়ে ধাক্কা লাগে। শাপলা পরিবহনটি বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। কম ক্ষতিগ্রস্থ রয়েল পরিবহন ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়ে।

কোটচাঁদপুর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার আব্দুর রাজ্জাক জানান- সকাল ৮টা ৫০ মিনিটের সময় দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ৩৫ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ২২ যাত্রীকে উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ী করে কোটচাঁদপুর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বাকীরা বিভিন্ন মাধ্যমে চলে যেয়ে তাদের সুবিধা মত চিকিৎসা নিয়েছেন।

কোটচাঁদপুর উপজেলা হাসপাতাল সূত্র জানায়, হাসপাতালে ৫জন যাত্রীকে গুরুতর অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

হাসপাতালে ভর্তি যাত্রীরা হচ্ছেন- ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার গৌরীনাথপুর গ্রামের খোরশেদ আলম (৩৫), একই উপজেলার গোয়ালহুদা গ্রামের বখতার আলীর স্ত্রী শরিফা বেগম (৬৫) কালিগঞ্জ উপজেলার ওলিয়ার রহমান (৪৫), ঝিনাইদহ সদর উপজেলা বিষয় খালী গ্রামের রমজান আলী (৪৭) ও যশোহর নাভারণের শরিফুল ইসলাম (৩৫)। হাসপাতালের দায়িত্বরত ডাক্তার অমিত কুমার নাথ বলেন প্রতিটা রোগীই এখন শঙ্কা মুক্ত তবে এ সকল রোগীদের সম্পূর্ণ সুস্থ হতে একটু সময় লাগবে।