ঢাকা-বেনাপোল ট্রেন উদ্বোধন উপলক্ষে বেনাপোলে রেলমন্ত্রী

::শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল::
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বেনাপােল-ঢাকা রুটে এক্সপ্রেস রেল সার্ভিস আগামী ২৫ জুলাই থেকে চালু হচ্ছে বলে জানালেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রেল চলাচলের শুভ উদ্বোধন করবেন। বুধবার বিকাল ৫টায় যশোর ও বেনাপোল রেলস্টেশন পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

এ সময় তিনি বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্প, ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস অফিস পরিদর্শন করেন।

ন্ত্রীর সাথে ছিলেন রেলওয়ের প্রধান প্রকৌশলী আফজাল হোসেন, পশ্চিমাঞ্চলের জোনের জেনারেল ম্যানেজার খন্দকার শহিদুল ইসলাম, চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার শাহ নেওয়াজ প্রমুখ।

রেলের পশ্চিমাঞ্চলের জোনের জেনারেল ম্যানেজার খন্দকার শহিদুল ইসলাম জানান, ঢাকার সঙ্গে রেল যোগাযোগ চালু হলে ব্যবসা বাণিজ্যের পাশাপাশি পাসপোর্টযাত্রী যাতায়াতের ব্যাপক সুবিধা হবে। প্রতিদিন দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ভারতে ছয় থেকে সাত হাজার পাসপোর্টযাত্রী যাতায়াত করে থাকে। এই যাত্রীদের সিংহভাগ আসে ঢাকা থেকে। বেনাপোল থেকে পরিবহন সংকট ও দৌলদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাট যানজটের কারণে যাত্রীরা নানামুখি হয়রানির শিকার হন। রেল চালু হওয়ায় সেই হয়রানি লাঘব হবে।

রেলটিতে ১০টি বগি থাকবে। তবে রেলের কোন নাম এখনও নির্ধারণ হয়নি। প্রাথমিকভাবে বেনাপোল এক্সপ্রেস, বন্দর এক্সপ্রেস ও ইছামতি এক্সপ্রেস এই তিনটি নাম পছন্দ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ১০টি বগির ভিতর দুটি কেবিন, দুটি এসি চেয়ার ও বাকিগুলো চেয়ারআসন থাকবে। কেবিনের ভাড়া প্রাথমিকভাবে এক হাজার ২০০ টাকা, এসি চেয়ারের ভাড়া এক হাজার টাকা ও নন এসি চেয়ারের ভাড়া হবে ৫০০ টাকা।

যশোর রেলওয়ের সহকারী ব্যবস্থাপক নিগার সুলতানা জানান, ট্রেনটি বেনাপোল থেকে ছেড়ে এসে যশোরে থামবে। এরপর ইঞ্জিন পরিবর্তন করে ঢাকার উদ্দেশ্য রওয়া দেবে। মাঝপথে ঈশ^রদীতে কিছু সময়ের জন্য যাত্রা বিরতি দেওয়া হবে। তবে সপ্তাহে কতদিন ট্রেনটি চলাচল করবে সেবিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এরআগে বেনাপোল পরিদর্শনে যান রেলমন্ত্রী। বিকেলে তিনি বেনাপোলে এসে পৌছালে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিনের পক্ষে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগসহ বেনাপোল পৌর ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

মন্ত্রী উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্য বলেন, দেশের সার্বিক উন্নয়নের মধ্যে বর্তমান সরকারের রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা একটি গুরুত্বপূর্ন উন্নয়ন। এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় বেনাপোল রেলস্টেশনকে আর্ন্তজাতিক মানের স্টেশনের মর্যাদা দিয়ে কোরবানী ঈদের আগে বেনাপোল থেকে ঢাকা পর্যন্ত সরাসরি ননস্টপ রেল চলাচল চালু হবে। তবে এটি যশোর ও ঈশ্বরদী সামান্য সময়ের জন্য থামবে। রেলটির নাম এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। নামটি প্রধানমন্ত্রী ঠিক করবেন। এছাড়া এ রেল পথে ঢাকা থেকে বেনাপোল এর ভাড়া এখনো নির্ধারণ করা হয়নি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নুরুজ্জামান, শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পূলক কুমার মন্ডল, বেনাপোল পোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ এনামুল হক মুকুল, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নাসির উদ্দিন, শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও যশোর জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, বেনাপোল ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ বজলুর রহমান, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন রাসেল, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুলফিক্কার আলী মন্টু, বাস্তহারালীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, ছাত্র নেতা আল ইমরান হোসেন, রুবেলসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। এসময় বেনাপোলবাসী রেলটির নাম বেনাপোল এক্সপ্রেস দেওয়ার দাবি করেছেন।