মোরেলগঞ্জে মালিকহীন দশ টন ধান জব্দ

::মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি::
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে মালিকহীন দশ টন বোরো ধান জব্দ করেছে প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা মো. কামরুজ্জামান শনিবার বেলা ১০টার দিকে এ ধান জব্দ করে পুলিশের হেফাজতে দেন।

শনিবার ভোররাত ৪টার দিকে কয়েকটি আলমসাধু গাড়িতে করে এ ধান মোরেলগঞ্জ খাদ্যগুদামের সামনে আনা হলে গাড়িসহ ধান জব্দ করা হয়। এ সময় গাড়ির চালকরা পালিয়ে যায়।

জানা গেছে, চলতি বোরো ধান সংগ্রহ মৌসুমে সরকারিভাবে প্রতিমণ ১০৪০ টাকা দরে কিনে মোরেলগঞ্জ খাদ্যগুদামে ৪১৪ মেট্রিকটন (১০ হাজার ৩৫০ মণ) ধান মজুদ করা হবে। নিয়ম অনুযায়ী স্থানীয় কৃষকরা ওই ধান সরবরাহ করবেন। শনিবার ভোররাতে আকস্মীকভাবে গাড়িতে করে ধান আনা হলে স্থানীয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানান।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, তাদের ধান খাদ্যগুদামে নিয়ে আসলে তা ক্রয় করা হচ্ছে না। অথচ প্রায়দিন ভোরবেলা টমটম ও আলমসাধু গাড়িতে অন্য উপজেলা থেকে এক শ্রেণির দালালরা ধান বোঝাই করে খাদ্যগুদামে বিক্রি করছে। আর আমাদের ধান রাস্তার ওপর ফেলে রাখতে হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে ভুয়া নাম ব্যবহার করে কৃষক কার্ড করা হয়েছে সে কার্ড দেখিয়ে বাইরের ধান ক্রয় করছে।

এ সম্পর্কে খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, কৃষক কার্ড দেখাতে না পারলে কেউ খাদ্যগুদামে ধান বিক্রিয় করতে পারবে না। নিয়ম অনুযায়ী ধান ক্রয় চলছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান বলেন, স্থানীয় কৃষকদের উৎপাদিত নয় সন্দেহে কিছু ধান জব্দ করা হয়েছে। এগুলো স্থানীয় কৃষকদের হলে খাদ্যগুদামে বিক্রির সুযোগ দেয়া হবে। বহিরাগত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্পন্দন/আরএইচ