শ্যামনগরে তিন ডাকাত গ্রেপ্তার

:: শ্যামনগর প্রতিনিধি ::
সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানা পুলিশের অভিযানে ভিন্ন ভিন্ন স্থান থেকে ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার হয়েছে। উপজেলার ধুমঘাট গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মহাদেব চন্দ্র মন্ডলের বাড়িতে ২৩ মে গভীর রাতে ডাকাতি সংঘটিত হয়। ৯ সদস্যের ডাকাত দল দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাড়ির মালিকসহ পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে বেঁধে নগদ ২৫ হাজার টাকা, ৬ ভরি সোনার অলংকার, দুইটি দামি মোবাইলসহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গৃহকর্তা মহাদেব চন্দ্র মন্ডল বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৯-১০ জনের নামে শ্যামনগর থানায় মামলা করেন।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ আনিসুর রহমান মোল্যার নির্দেশনায় মামলার আইও এসআই আব্দুর রাজ্জাক ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা অব্যাহত রাখেন। ফলশ্রুতিতে ১৭ জুলাই ডাকাত দলের অন্যতম সদস্য উপজেলার কুলটুকরী গ্রামের লুৎফার গাজীর ছেলে বকুল গাজী (২৩) কে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

বকুলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ডাকাত দলের সদস্য উপজেলার গৌরিপুর গ্রামের জবেদ আলী মিস্ত্রীর ছেলে আবুল খায়ের ওরফে বাবু মিস্ত্রী (২৫) কে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। আবুল খায়ের ও বকুলকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে উপজেলার বাদঘাটা গ্রামের আবুল মেথরের ছেলে কবির (২৩) সহ আরও ৬ জন ডাকাত সদস্যের নাম অকপাটে স্বীকার করে।

পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া বকুলের কাছ থেকে ১টি মোবাইল উদ্ধার করা হয় ও তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঘটনাস্থলের অদূরে খালের মধ্যে থেকে দুইটি বড় আকারের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার হয়।

পুলিশ তদন্তের স্বার্থে বাকি ৬ জনের নাম গোপন রেখেছে বলে তদন্ত কর্মকর্তা জানান।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ আনিসুর রহমান মোল্যা জানান, ঘটনার সাথে জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের তৎপরতা অব্যহত রয়েছে।