যশোরে বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত, মঙ্গলবারও ভর্তি ১৩

:: বিল্লাল হোসেন ::
যশোরে ভয়াবহ হয়ে উঠছে ডেঙ্গু জ্বর। প্রতিদিনই বেড়ে চলছে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত সংখ্যা। মঙ্গলবার যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ১৩ জন ভর্তি হয়েছেন।

তারা হলো যশোর শহরের লোন অফিস পাড়ার নাহিদ হাসান (২৭), বেজপাড়ার তমা (২৩), পালবাড়ি মোড়ের অর্থি (৮), সদর উপজেলার চাঁচড়া মোড়ের আয়রিন (৩৬), দৌলতদিহি গ্রামের সুরাইয়া (১৮), নারাঙ্গালী গ্রামের মনিরা (২৩) হামিদপুর এলাকার অপু (২৩), শার্শা উপজেলার শার্শা গ্রামের এলাকার সমির (২০), ঝিকরগাছা উপজেলার নতুনহাট গ্রামের জাকিয়া (১৭), চৌগাছা উপজেলা মোড়ের নাসরিন রহমান (৪২), মাড়ুয়া গ্রামের ফেরদৌস হোসেন (১৯), মণিরামপুর উপজেলার শের আলী মদনপুর গ্রামের নাজমুল ইসলাম (১৮) ও এড়েন্দা গ্রামের বিপুল (৩২)।

এর আগে আরো ৬ জন ঢাকায় না গিয়েও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে রোববার সরকারি এ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তাদের মধ্যে রয়েছে, যশোর শহরের বেজপাড়া গয়ারামপুর রোডের গৌতম সরকারের মেয়ে স্কুল ছাত্রী রোদেলা খাতুন উর্মি (৮), যশোর সদর উপজেলার পুলেরহাট গ্রামের আবুল কালাম আজাদের ছেলে সোহেল (২৬), কাশিমপুর ইউনিয়নের উসমানপুর গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে আব্দুল্লাহ (৫), সদরের ফতেপুর ইউনিয়নের ভায়না গ্রামের বাসিন্দা ইমান আলী গাজী (৬৭)। চৌগাছা পৌর এলাকার নিরিবিলি পাড়ার আব্দুল মোতালেব হোসেনের মেয়ে মোহনা (২১) ,মণিরামপুর উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের জাকির হোসেনের স্ত্রী আকলিমা খাতুন (৩৫)।

হাসপাতাল থেকে দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ২১ জুলাই থেকে ৩০ জুলাই বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন আছেন মোট ৪৫ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবুল কালাম আজাদ লিটু জানান, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন একাধিক রোগী হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। তাদের সাধ্যমতো চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হচ্ছে। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের সংখ্যা তৈরি করে প্রতিদিন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হচ্ছে।

যশোর জেলা সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭১ জন ডেঙ্গু রোগী। এরমধ্যে যশোর থেকে ২২ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন বলে তথ্য পেয়েছেন। সেগুলো যাচাই করা হচ্ছে।

যশোরের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. এমদাদুল হক রাজু জানান, ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধের বিষয়ে তাদের সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।