বাঁকড়ায় রাস্তার উপর পাঁচিল দেয়ায় ২৫ পরিবারের যাতায়াতের পথ বন্ধ

এম আলমগীর, বাঁকড়া (ঝিকরগাছা):
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের উজ্জ্বলপুর গ্রামে জমি জায়গা সংক্রান্ত বিরোধে রাস্তার উপর পাঁচিল দিয়েছে এক ব্যক্তি। খোরশেদ মোড়লের দেয়া পাঁচিলের কারণে ইউপি সদস্যসহ ২৫ টি পরিবারের চলাচলের রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ঝিকরগাছা থানায় অভিযোগ হয়েছে।
অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, উজ্জ্বলপুর গ্রামের ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা ও কটাই মোড়লের ছেলে খোরশেদ মোড়লের সাথে জমি নিয়ে বিবাদ চলছিল। এর জের ধরে খোরশেদ মোড়ল তার বাড়ির পাশের একটি রাস্তার উপর পাচিল দেয়। ফলে ২৫ টি পরিবারের বাড়ি যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। স্থানীয় ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফাসহ ভুক্তভোগী আব্দুর রাজ্জাক, হযরত আলী, নুরুল হক, ঝরনা বেগম, হাসানুর রহমান, আব্দুল আজিজ, শাহাদাত হোসেন জানান, ওই রাস্তা যুগ যুগ ধরে ব্যবহৃত হচ্ছে। ভুক্তভোগী আওয়ামী কর্মী আব্দুল আজিজ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যারা রাস্তা বন্ধ করেছে, তারা সবাই জামায়াত-বিএনপির সদস্য। গত উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর আনারস মার্কায় ভোট করে আজ ক্ষমতা দেখাচ্ছে। সারা জীবন নৌকায় ভোট দিয়ে আজ আমরা নব্য আওয়ামী লীগের কাছে নির্যাতিত হচ্ছি। ইউনিয়নের এক প্রভাবশালী নেতার ছত্রছায়ায় তারা আমাদের রাস্তা বন্ধ করার সাহস দেখাচ্ছে। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাচনের পর খোরশেদ মোড়লরা ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফাকে মারপিট করেছিল। সেই ঘটনায় ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফার ছেলে মামুন হোসেন বাদী হয়ে ঝিকরগাছা থানায় ৫ জনকে আসামি একটি মামলা দায়ের দায়ের করেন। আসামিরা হলো- কটাই মোড়লের ছেলে খোরশেদ মোড়ল ও আরশাদ আলী, লুৎফর আলীর ছেলে কুদ্দুস আলী ও বিল্লাল হোসেন এবং ওয়াজেদ আলীর ছেলে কাশেম আলী। পুলিশ খোরশেদ আলী ও কাশেম আলীকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন। তারা জামিনে মুক্তি পেয়ে এসেই রাস্তার উপর পাঁচিল দিয়েছে।
এ ব্যাপারে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল করিম জানান, রাস্তাটি অনেক দিনের। সেটা বন্ধ করা দুঃখজনক। এছাড়া খোরশেদরা কোনদিন আওয়ামী লীগ করেনি। গত উপজেলা নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষ নিয়ে ভোট করে তারা আজ ক্ষমতার দাপট দেখাচ্ছে।
ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষে ইউপি সদস্য ঝিকরগাছা থানায় একটি অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে থানার এসআই সিরাজুল ইসলাম। তিনি জানান, এলাকার মানুষ জানিয়েছে রাস্তাটি দীর্ঘদিনের। রাস্তা বন্ধ হওয়ার কারণে দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।