যশোর কেন্দ্রীয় ঈদগাহে জামাত সোয়া ৮টায়

:: নিজস্ব প্রতিবেদক ::
যশোরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ঈদুল আযহার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে। শহরবাসীর ঈদের নামাজ আদায় করার জন্য ইতিমধ্যে ঈদগাহ প্রস্তুত করা হয়েছে। শুক্রবার যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পৌরসভার সচিব আজমল হোসেন জানান, ঈদগাহে মানুষের নামাজ পড়ার জন্য পৌরসভার অর্থায়নে ঈদগাহের মাঠ ত্রিফল দিয়ে ঢাকা হয়েছে। সেই সাথে ঈদগাহে লাগানো হয়েছে ১৫০টি সিলিং ফ্যান, ৮০টি এলইডি লাইট। এর সাথে আরো ৩০টি টেবিল ফ্যানের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মুসল্লিদের নিরাপত্তার স্বার্থে ঈদগাহের ভেতরে ও চারপাশে স্থাপন করা হয়েছে ৩০টি সিসি ক্যামেরা। গত ঈদুল ফিতরের মতো ঈদুল আযহায় মানুষ নির্বিঘ্নে নামাজ পড়তে পারবে।

যশোরের পৌর মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু জানান, পৌরবাসীর স্বাচ্ছন্দ্যে ঈদের নামাজ পড়ার জন্য ঈদগাহ প্রস্তুত করা হয়েছে। যাতে বৃষ্টির কারণে নামাজ পড়ায় বিঘ্ন না ঘটে সেজন্য মাঠ ত্রিফল দিয়ে ঢাকা হয়েছে। আমি মেয়র হিসেবে পৌরবাসীর সেবা করে যেতে চাই।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দীন সিকদার জানান, ঈদের দিন যশোর কেন্দ্রীয় ঈদগাহে নিরাপত্তা জোরদার করা হবে। সেখানে নামাজ পড়তে আসা মানুষের নিরাপত্তার জন্য মেটাল ডিটেক্টর মেশিন স্থাপন করা হবে। সেই সাথে ঈদগাহের ভেতরে ও বাইরে পর্যাপ্ত পুলিশ ফোর্স দায়িত্ব পালন করবে।

এদিকে, জুমার নামাজের পর ঈদগাহ মাঠ পরিদর্শন করেন পৌরমেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, সাধারণ সম্পাদক আহসান কবীর, গ্রামের কাগজের সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, সিটি ক্যাবলের চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন বাবু, পৌরসভার সচিব আজমল হোসেন, উপসহকারী প্রকৌশলী কামাল হোসেন, জেলা যুবলীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক তৌফিকুল ইসলাম শাপলা প্রমুখ। পরিদর্শন শেষে দোয়া পরিচালনা করেন যশোর কালেক্টরেট মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মুফতি ইয়াসিন আলম।