যশোর পৌরপার্কে নানা অপরাধে যুক্তরা চিহ্নিত, আটকে তৎপর পুলিশ

:: নিজস্ব প্রতিবেদক ::

যশোর পৌরপার্কে ঘুরতে আসা সাধারণ মানুষকে ফাঁদে ফেলে বা হুমকি দিয়ে নানা ফয়দা লুটকারীদের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। তাদের আটকের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানাগেছে।

ইতোমধ্যে ওই পার্কে দুইদিন অভিযান চালিয়ে ২০ কিশোর-যুবককে আটক করে তাদের অভিভাবকের জিম্মায় দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে কোনো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ঘটালে কোনো ছাড় দেয়া হবে না বলে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

ওই এলাকার একটি সূত্র জানিয়েছেন, ওয়াপদা পাড়ার কতিপয় যুবক প্রতিদিন পৌরপার্কে গিয়ে নানা ধান্দা ফিকির করে বেড়ায়। কোনো যুবক যুবতী বা কোনো ছেলে মেয়েকে দেখলে তারা দুর থেকে গোপনে মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় ছবি তোলে। পরে তাদের কাছে গিয়ে ওই ছবি দেখিয়ে ব্লাকমেইলিং করে থাকে। এছাড়া নানা ভয় দেখিয়ে টাকা পয়সা ও মোবাইল ফোন এমনকি সোনার অলংকারও হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। আবার রীতিমতো ছুরি-চাকুর ভয় দেখিয়ে ছিনতাই করে থাকে। ছুরিকাঘাতে জখমের ঘটনাও হয় অহরহ। অনেক ভুক্তভোগি ঝামেলার আশঙ্কায় পুলিশে অভিযোগ করেনা।

এ রকম নানা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কোতয়ালি থানা পুলিশ পৌরপার্কে অভিযান চালায়। অহেতুক আড্ডা দেয়ার অভিযোগে দুই দিনে ২০জনকে আটক করে থানায় নেয়া হয়। অবশ্য পরে আটককৃতদের তাদের অভিভাবকের জিম্মায় দেয় পুলিশ।

পুলিশের একটি সূত্রে জানাগেছে, ওয়াপদা এলাকার সুলতানের ছেলে অনিক, বাবু ওরফে তেল বাবুর ছেলে সাগরসহ বেশ কয়েকজন পৌরপার্কে নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত। শুক্রবার বোমাসহ আটক খোলাডাঙ্গা এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে মনিরুজ্জামান নিরবও পৌরপার্কে নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে বেড়ায় বলে পুলিশের কাছে তথ্য আছে।

কোতয়ালি থানার এসআই আমিরুজ্জামান জানিয়েছেন, পৌরপার্কে ছুরিকাঘাতের বেশ কয়েকটি ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে কয়েকজনের নাম পাওয়া গেছে। যারা প্রতিনিয়ত নানা অপরাধের সাথে জড়িত। এদেরকে আটকের জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।