এসএম সুলতানের জন্মবার্ষিকী উদযাপন

:: ফরহাদ খান, নড়াইল ::
নড়াইলে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে এসএম সুলতানের ৯৫তম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসন ও এসএম সুলতান ফাউন্ডেশনের আয়োজনে শনিবার সকালে সুলতান সংগ্রহশালা চত্বরে শিল্পীর মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, জিয়ারত, দোয়া মাহফিল, কোরআনখানি, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোচনাসভা ও পুরস্কার বিতরণের আয়োজন করা হয়।

জেলা প্রশাসন, এসএম সুলতান ফাউন্ডেশন, নড়াইল প্রেসক্লাব, এসএম সুলতান বেঙ্গল চারুকলা মহাবিদ্যালয়, লাল বাউল সম্প্রদায়, গ্রেভ শিল্পী গোষ্ঠীসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শিল্পীর সমাধিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইয়ারুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মাহবুবুর রশিদসহ সুলতানপ্রেমীরা। এছাড়া চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় স্থানীয় শিশুরা অংশগ্রহণ করে।

বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতান ১৯২৪ সালের ১০ আগস্ট নড়াইলের মাছিমদিয়ায় বাবা মেছের আলী ও মা মাজু বিবির ঘরে জন্মগ্রহণ করেন। যার রঙ তুলিতে দারিদ্র-ক্লিষ্ট ও খেটে খাওয়া মানুষগুলো হয়েছেন পেশিবহুল। শ্রমজীবী মানুষগুলো হয়েছেন শক্তিশালী ও দৃঢ় মনোবলের অধিকারী।

চিত্রশিল্পের মূল্যায়ন হিসেবে এসএম সুলতান ১৯৮২ সালে ‘একুশে পদক’, ১৯৮৪ সালে ‘রেসিডেন্ট আর্টিস্ট’ ১৯৮৬ সালে ‘বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ সম্মাননা’ এবং ১৯৯৩ সালে ‘স্বাধীনতা পদক’ পেয়েছেন।

এছাড়াও ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ম্যান অব দ্য ইয়ার’, নিউইয়র্কের বায়োগ্রাফিক্যাল সেন্টার থেকে ‘ম্যান অব অ্যাচিভমেন্ট’ এবং এশিয়া উইক পত্রিকা থেকে ‘ম্যান অব এশিয়া’ পুরস্কার লাভ করেন।

অসুস্থ অবস্থায় ১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার পর নড়াইলে প্রিয় জন্মভূমিতে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।