পুলিশি হস্তক্ষেপে মুক্ত হলো অবরুদ্ধ ভাগ্নে

::ফরহাদ খান ও মাহফুজুল ইসলাম, নড়াইল::

অবশেষে পুলিশের হস্তক্ষেপে মামার অবরোধ থেকে মুক্ত হলো নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কুচিয়াবাড়ী গ্রামের তরিকুল ইসলামের পরিবার। পুলিশ শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাদের বাড়িতে পুলিশ গিয়ে বাঁশের বেড়া অপসারণ করে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) শেখ ইমরান, লোহাগড়া থানার এসআই মিলটন কুমার দেবদাসসহ পুলিশের একটি দল।

ভুক্তভোগী তরিকুল ইসলাম বলেন, বাড়ি ও ক্ষেতের জমি বিক্রির অপরাধে পাশের ঝিকড়া গ্রামের হাফিজুর রহমান ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে শনিবার সকাল ৮টার দিকে হঠাৎ করে বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘরের তিন পাশ ঘিরে ফেলেন। ভয়ে এ অন্যায়ের প্রতিবাদও করতে পারিনি। একপর্যায়ে আমার মা, স্ত্রী ও দুই শিশু সন্তানসহ আমি ঘরের মধ্যে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ি।

তরিকুল জানান, পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপের পর গ্রামবাসীও বিষয়টি মীমাংসার জন্য নড়েচড়ে বসেন। এজন্য রোববার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত গ্রামবাসীর উদ্যোগে দুইপক্ষের মধ্যে তিনদফা আলোচনার ভিত্তিতে বিরাজমান দ্বন্দ্ব মিটে গেছে।

জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে হাফিজুর রহমান, তরিকুলের সঙ্গে সহাবস্থান বজায় রাখবেন বলে আলোচনাসভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া দুইপক্ষ আর কোনো দ্বন্দ্বে জড়াতে চান না বলেও অঙ্গিকার করেন।