বাগেরহাটে নিখোঁজের দুদিন পর ডোবা থেকে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

::বাগেরহাট প্রতিনিধি::

নিখোঁজের দু’দিন পর এক স্কুলছাত্রের লাশ বাগেরহাট সদর উপজেলার কার্তিকদিয়া গ্রামের একটি ডোবা থেকে উদ্ধার হয়েছে। রোববার বিকেলে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র কল্যাণ পালের (১১) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র কল্যান পালকে গলা টিপে হত্যা করা হতে পারে। সে সদর উপজেলার কার্তিকদিয়া গ্রামের কৃষ্ণপদ পালের ছেলে।

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহতাব উদ্দিন জানান, স্কুলছাত্র কল্যান পাল গত ২৩ আগস্ট জন্মাষ্টমীর দিন সকালে কার্তিকদিয়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে বের হবার পর সে নিখোঁজ হয়। পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে সদর মডেল থানায় সাধারণ ডায়রি করেন।

রোববার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কার্তিকদিয়া গ্রামের স্থানীয় লোকজন ডোবায় একটি লাশ ভাসতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধারের পর দেখা যায় লাশটি নিখোঁজ স্কুলছাত্র কল্যানের। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মানসুরা খানম বলেন, কল্যান পাল মেধাবী ছাত্র ছিলো। সে মির্জাপুর গ্রামে তার নানা স্কুলশিক্ষক সুব্রত কুমার পালের বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করতো।