ডিএনএ’র জন্য ঢাকায় নেয়া হলো সেই শিশু মা ও নবজাতককে

::নিজস্ব প্রতিবেদক::

পুত্র সন্তানের মা হওয়া সেই ১০ বছরের শিশুর ডিএনএ টেস্টের জন্য ঢাকায় নেয়া হয়েছে। সোমবার রাতে একটি মাইক্রোবাসে করে মণিরামপুর থানা পুলিশ মা-ছেলে এবং ওই শিশু মায়ের একজন অভিভাবককে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় বলে জানা গেছে।

মণিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, মা-ছেলের সঙ্গে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সোমেন কুমার দাস, কয়েকজন নারী পুলিশ কনস্টেবল ও ওই মেয়ের তিনজন অভিভাবক রয়েছেন।

গত ৭ সেপ্টেম্বর সকালে ওই শিশু মেয়েটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেয়। এর আগে ওই মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলার আসামি হয়ে জেলহাজতে বন্দি রয়েছেন উপজেলার পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন কর্তকর্তা গোলাম কিবরিয়া। ওই মেয়েটি তার বাড়িতে কাজ করতো। এ সুযোগে তাকে প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন গোলাম কিবরিয়া।

এ ঘটনায় দায়ের করার মামলায় আটক হলে বরাবরই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন গোলাম কিবরিয়া। ফলে মা ও শিশু পুত্রের ডিএনএ টেস্ট অত্যাবশ্যকীয় হয়ে ওঠে। মামলাটি আদালতে চলমান। ফলে ডিএনএ রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর পুত্র সন্তানের পিতা কে এবং ওই শিশু মা ধর্ষিত হয়েছিল কি না তা পরিষ্কার হবে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মণিমারপুর থানার এসআই সোমেন কুমার দাস সোমবার রাত ৯টার দিকে দৈনিক স্পন্দনকে জানান, শিশু মা ও নবজাতককে ঢাকায় নেয়া হয়েছে। সিআইডি হেডকোয়ার্টারের ডিএনএ ল্যাবে শিশু ও মায়ের পরীক্ষা নিরীক্ষা চলবে। রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর সবকিছু পরিষ্কার হবে।