পুত্রবধূর পরকীয়ার বলি শ্বশুর

::নিজস্ব প্রতিবেদক, মহেশপুর::

ছেলে ঢাকার একটি গার্মেটসে চাকরি করেন। ছেলের বউ আখি খাতুন প্রতিবেশী হোসেনের সাথে পরকীয়ায় হাবুডুবু খাচ্ছে। পাড়ামহল্লার লোক মুখে শুনে বাড়িতে এসে প্রতিবাদ করলে শ্বশুর আজিজ মোল্লাকে (৭০) পুত্রবধু আখি খাতুন ও তার শাশুড়ি রোকেয়া বেগম অণ্ডকোষ টিপে ও মাটিতে ফেলে হত্যা করেছে। কথাগুলো বলছিলেন প্রতিবেশীরা।

রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার খড়োমান্দার তলার খালপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ রাতেই আখি খাতুন (২২) ও তার শাশুড়ি রোকেয়া বেগমকে (৫৫) আটক করেছে। নিহত আজিজ মোল্লার লাশ পুলিশ উদ্ধার করে ঝিনাইদহ মর্গে প্রেরণ করেছে।

খড়োমান্দার তলা গ্রামের আবুল কাশেম জানান, আজিজ মোল্লার ছেলে হোসেন আলী বাড়িতে না থাকার কারণে পুত্রবধূ আখি খাতুন প্রতিবেশী মোহাম্মদ হোসেনের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। পরে বিষয়টি শ্বশুর আজিজ মোল্লা লোক মুখে জানতে পেরে রোববার রাতে বাড়িতে এসে বিষয়টি পুত্রবধূ আখি খাতুনের কাছে জানতে চাইলে আখি খাতুন ও তার শাশুড়ি রোকেয়া বেগম মিলে আজিজ মোল্লাকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে খুন করে।

এদিকে এলাকায় গুঞ্জন চলছে পরকীয়ার প্রেমিক মোহাম্মদ হোসেনের নির্দেশে শ্বশুর আজিজ মোল্লাকে হত্যা করা হয়েছে।

মহেশপুর থানার ওসি (তদন্ত) আমানউল্লা হক জানান, কিভাবে তার মৃত্যু হয়েছে ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত কিছুই বলা যাবে না। কারণ নিহত আজিজ মোল্লার শরীরের কোনো স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে আখি খাতুন ও তার শাশুড়ি রোকেয়া বেগমকে আটক করা হয়েছে।