বাঁকড়ায় পুলিশের তৎপরতায় জীবন বাঁচলো যুবলীগ নেতার

::এম আলমগীর, বাঁকড়া (ঝিকরগাছা)

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়ায় পুলিশের সহায়তায় জীবন বাঁচলো ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রুবেল হোসেনের। পুলিশের তৎপরতায় তাকে চিকিৎসার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতালে নেয়া হয়।

জানা যায়, উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ড (দিগদানা) যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রুবেল হোসেন সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়। তাকে সন্ত্রাসীরা মৃত ভেবে মাটশিয়া গ্রামের বড় রাস্তার পাশে ফেলে রাখে। রাতে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই নিয়ামত আলী রাতে পেট্রোল ডিউটির সময় রাস্তার পাশে তাকে পেয়ে দ্রুত বাঁকড়া মেডিকেল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের নিয়ে আসেন।

এ সময় নিয়ামত আলী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মেজবাহ উদ্দীন আহমেদকে জানালে তিনি আহত রুবেল হোসেনকে দেখতে ক্লিনিকে আসেন এবং তার অবস্থার অবনতি দেখে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠান।

রুবেলের শারীরিক অবস্থার ক্রমেই খারাপ দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেলে স্থানান্তর করেন। রুবেল দিগদানা নগর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

এ ব্যাপারে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মেজবাহ উদ্দীন আহমেদ দৈনিক স্পন্দনকে জানান, আমাদের পেট্রোল টিম দায়িত্বরত অবস্থায় রুবেলকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে এক মহিলা রুবেলকে চিনতে পারলে তার পরিবারকে খবর দেয়া হয়। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। মামলা রেকর্ড হলেই আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো এবং আসামিদের আইনের আওতায় নিয়ে আসবো।

অন্যদিকে রুবেলকে হত্যা চেষ্টায় কে বা কারা থাকতে পারে, তা নিয়ে এলাকায় আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

রুবেলের খালাতো ভাই মিজানুর রহমান মিজান জানান, কারা এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকতে পারে সেটা আমরা জানি। তবে রুবেল সুস্থ হওয়ার অপেক্ষায় আছি। তার মুখ থেকে বিস্তারিত শুনে মামলা করবো। এখন প্রাথমিকভাবে অভিযোগ করবো।