প্রেমিকার বাড়িতে গিয়ে ধরা ভুয়া সেনা কর্মকর্তা!

::নিজস্ব প্রতিবেদক::

সেনাবাহিনীর অফিসার পরিচয় দিয়ে প্রেম করেছিলেন সোহেল রানা (২৪)। কিন্তু প্রেমিকার বাড়িতে গিয়ে ধরা পড়ে তার আসল পরিচয় ফাঁস হয়ে যায়। আসলে সে একজন সেনাকর্মকর্তা নয়। পরে তাকে যেতে হয়েছে পুলিশের খাঁচায়। আর প্রতারণার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায়।

তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৭টি পরিচয়পত্র। যার বেশির ভাগই সেনাবাহিনীর বিভিন্ন র‌্যাঙ্ক সম্বলিত। তার পরনে একটি সাদা রঙয়ের গেঞ্জি রয়েছে। সেখানেও সেনাবাহিনীর দুইটি লোগো সাটানো আছে। সোহেল রানা নড়াইল সদর উপজেলার ফুলবাড়িয়া ইবাখালী গ্রামের ওহিদুল মোল্লার ছেলে।

যশোর সদর উপজেলার তালবাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই নজরুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে সোহেল রানা তালবাড়িয়ার তালতলা এলাকার একটি বাড়িতে যায়। সেখানে তিনি নিজেকে সেনাবাহিনীর সেকেন্ড লেফটেনেন্ট হিসেবে পরিচয় দেন। ওই বাড়ির লোকজনকে সেনাবাহিনীর পরিচয়পত্রও দেখান।

পরে সংবাদ পেয়ে সেখানে গিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করি। পরে নিশ্চিত হই সোহেলা রানা আসলে সেনাবাহিনীর কোনো সদস্য নয়। তিনি নিজেকে বিভিন্ন এলাকায় সেনাবাহিনীর সদস্য পরিচয়ে প্রতারণা করে আসছে। তার কাছ থেকে ৭টি আইডি কার্ড জব্দ করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর পোশাক পরিহিত ছবি ব্যবহার করে নিজেই নকল কার্ড বানিয়েছেন।

সোহেল রানা জানান, তিনি যশোরের একটি নার্সিং হোমের সেবিকাকে ভালোবাসেন। তার সাথে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে উঠে। তার বাড়ি যশোর সদর উপজেলার তালবাড়িয়া গ্রামে। বৃহস্পতিবার তিনি তার প্রেমিকার বাড়িতে গিয়েছিলেন। পরে কথাবার্তার একপর্যায়ে বাড়ির লোকজনকে সরকারি চাকরি করি বলে পরিচয় দেন।

সেনাবাহিনীর পোশাক বা ব্যাচ কোথা থেকে পেয়েছেন জানতে চাইলে তিনি কোনো উত্তর দেননি।