যশোরে যুবলীগ অফিসে বোমা হামলার স্বীকারোক্তি আটক আমিনুরের

✍ নিজস্ব প্রতিবেদক

যশোর শহরের শংকরপুর আশ্রম রোডে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জের ধরে বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণ করা হয়েছিল। বেজপাড়া চোপদারপাড়ার এক সন্ত্রাসীর কথামত এ হামলা চালানো হয়েছিল।

বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণ মামলায় আটক আমিনুর রহমান শুক্রবার আদালতে দেয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এ তথ্য দিয়েছে।

আদালতের বিচারক তার জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোকলেছুজ্জামান।

জবানবন্দিতে আমিনুর রহমান আদালতকে জানিয়েছেন, এলাকায় দলীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে যুবলীগের দুটি পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছে। এর জের ধরে বেজপাড়া চোপদারপাড়ার এক সন্ত্রাসীর কথামত তারা ৭/৮ জন বোমা ও অস্ত্র নিয়ে আশ্রম রোডে যান। এ সময় তারা প্রতিপক্ষকে না পেয়ে যুবলীগ অফিসে বোমা হামলা করেন।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বিকেলে সন্ত্রাসীরা আশ্রম রোডে যুবলীগ অফিসে বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণ করে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে কোতয়ালি থানায় একটি মামলা করে। পরে হামলার ঘটনায় জড়িত আমিনুর রহমান নামে এক সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়।

সে বেজপাড়া চোপদারপাড়ার ইসহাক আলীর ছেলে। তাকে আদালতে সোপর্দ করা হলে শুক্রবার তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।