আবরার হত্যার প্রতিবাদে রাস্তায় যশোরে সর্বস্তরের মানুষ

✍ নিজস্ব প্রতিবেদক

বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকারীদের বিচার ও শাস্তির দাবিতে বৃহস্পতিবার রাস্তায় নেমে আসে যশোরের সর্বস্তরের মানুষ। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাস বন্ধ, মেধাবী ছাত্র আবরার হত্যাকারীদের আটক ও শাস্তির দাবি জানিয়েছে তারা। তাদের হাতে ছিল প্লাকার্ড, পোস্টার ও ব্যানার।

বেলা ১২টা থেকে ১২টা ১০ মিনিট ওই মানববন্ধন চলে। শহরের দড়াটানা, চৌরাস্তা, চিত্রা মোড় প্রেসক্লাবের সামনে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ মানববন্ধনে অংশ নেয়। সকলের দাবি ছিল আবরার হত্যাকারীদের আটক ও শাস্তি এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সন্ত্রাসমুক্ত করা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, শিক্ষাঙ্গনে পিতামাতা সন্তানকে লেখাপড়া করে শিক্ষিত হওয়ার জন্য পাঠান। লাশ হওয়ার জন্য পাঠান না। কিন্তু সন্ত্রাসীদের কারণে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক শিক্ষার্থী সন্ত্রাসীদের হাতে প্রাণ হারাচ্ছে। এতে পিতামাতা তাদের সন্তান হারানোর সাথে সাথে রাষ্ট্র হারাচ্ছে মেধাবীদের।

প্রেসক্লাব যশোরের সামনে মানববন্ধনে অংশ নেন যশোর আরএন রোডের বাসিন্দা নাসিমা আক্তার।

তিনি বললেন, ‘আজ আবরারকে পিটিয়ে মারা হচ্ছে। কাল আমার সন্তানতো বড় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়তে যাবে। তখন তাদের যেন এমন পরিণতির শিকার না হতে হয়। সেই বাস্তবমুখী ভবিষ্যত চিন্তা করে মানববন্ধনে অংশ নিয়েছি।’

মানববন্ধনে শিশু সন্তান সৈয়দ আসলিম ওয়ারেশকে নিয়ে অংশ নেন ব্যবসায়ী সৈয়দ আব্দুস ওয়ারেশ। তিনি বলেন, ‘মেধাবী ছাত্র আবরারের অকাল মৃত্যুতে ব্যাথিত হয়ে তার প্রতিবাদে মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছি। কারণ আমারও সন্তান আছে।’

মানববন্ধনে অংশ নেয়া রাবিয়া সুলতানা বললেন, ‘আবরারকে হত্যা করা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও এখন শিক্ষার্থীরা নিরাপদ নয়। আমাদের আজকের এই আন্দোলনে হয়তো একদিনে কাজ হবে না। তবে ভবিষ্যতে যেন আমাদের সন্তানদের নিরাপদ রাখতে পারি তার জন্য এই আন্দোলন।’

মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিশু সাফাউদ্দিন পড়ে যশোর কালেক্টরেট স্কুলের তৃতীয় শ্রেণিতে। সে বলে, ‘আমি আমার মাকে আসতে বলেছি। কারণ আমাদের সাথেও তো এমন হতে পারে।’

প্রেসক্লাব যশোরের সামনে যশোরের সম্মিলিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ব্রাদারস টিটো, দৈনিক লোকসমাজের বার্তা সম্পাদক শিকদার খালিদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমিনুর রহমান সিদ্দিকী, সুজন দত্ত লাল্টু, সরকারি সিটি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র গোলাম আযম, মাস্টার্সের ব্যবস্থাপনা বিষয়ের ছাত্র ইলিয়াস হোসেন, মাস্টার্স হিসাববিজ্ঞানের ছাত্র মিজানুর রহমান, এমএম কলেজের মাস্টার্সের ভুগোল বিষয়ের ছাত্র সুমন কবীর, রবিউল ইসরাস, মনির হোসেন। মানববন্ধনে কোমলমতি শিক্ষার্থীর সাথে তাদের মায়েরা উপস্থিত ছিলেন।