উড়ন্ত ছিনতাইকারীর কবলে দুই নারী, কোল থেকে পড়ে শিশু আহত

✍ নিজস্ব প্রতিবেদক

উড়ন্ত ছিনতাইকারীর কবলে পড়েছেন দুই নারী। এরমধ্যে ছিনতাকারীর ছোবলে এক নারীর সন্তান কোল থেকে পড়ে গুরুতর আহত ও আরেক নারী রিকশা থেকে পড়ে আহত হয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে ও বৃহস্পতিবার রাতে আলাদাভাবে যশোর শহরে তারা আক্রান্ত হন। এই দুই ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

ছিনতাই করার জন্য চলন্ত ইজিবাইক থেকে ব্যাগ কেড়ে নেয়ার সময় মায়ের হাত থেকে রাস্তায় পড়ে জখম হয় তিন বছরের শিশু রিকো বিশ্বাস। শুক্রবার দুপুরে যশোর শহরের মুজিব সড়কের প্রেসক্লাব যশোরের বিপরীতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিশুকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শিশুটি মাগুরা সদর উপজেলার নগর বাজার এলাকার উত্তম বিশ্বাসের ছেলে।

বাবা উত্তম বিশ্বাস জানান, শ্বশুরবাড়ি মণিরামপুর উপজেলার মশ্মিনগর গ্রাম থেকে ফিরছিলেন। দুপুরে চাঁচড়া চেকপোস্ট থেকে ইজিবাইক নিয়ে উপশহর খাজুরা বাসস্ট্যান্ডে যাচ্ছিলেন। সাথে ছিল স্ত্রী দিপালী বিশ্বাস, ১০ বছরের শিশু আপন বিশ্বাস ও তিন বছরের শিশু রিকো বিশ্বাস। দিপালীর কোলে ছিল রিকো। সার্কিড হাউজ পেরিয়ে কিছুদুর এগিয়ে আসার সাথে সাথে বিপরীত দিক দিয়ে আসা একটি মোটরসাইকেলে করে দুইজন ইজিবাইকের পাশে এসে দাঁড়ায়। মোটরসাইকেলের পিছনে বসা এক যুবক দিপালীর হাতে থাকা ব্যাগ কেড়ে নেয়ার জন্য টান দেয়। কিন্তু ব্যাগ নিতে পারেনি। দিপালীর কোল থেকে রাস্তায় পড়ে যায় শিশু রিকো। মোটরসাইকেলচালকের মাথায় হেলমেট ছিল। আর পিছনে বসা যুবকের মুখে রুমাল বাঁধা ছিল। তারা দ্রুত গতিতে জিলা স্কুলের দিকে চলে যায়। পরে আশপাশের লোকজন এসে রিকোকে উদ্ধার করে। তার মাথায় আঘাত লেগেছে। দ্রুত তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসক সিটিস্ক্যান করার পরামর্শ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে কথা হয় কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মনিরুজ্জামানের সাথে। তিনি জানান, ঘটনার পরপরই সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আশপাশের ভবন থেকে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহের কাজ চলছে। আসামি শনাক্তের জন্য পুলিশ চেষ্টা করছে।

অপরদিকে, উড়ন্ত ছিনতাইকারী পারস (ব্যাগ) কেড়ে নিয়ে পালানোর সময় রিকসা থেকে পড়ে গিয়ে আহত হয়েছেন ঊষা নামে এক নারী। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে যশোর পৌরসভার সামনের রাস্তায় এ ঘটনা ঘটেছে।

পুরাতন কসবা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই সুকুমার কুন্ড জানান, ওই নারীর বাড়ি যশোর সরকারি মহিলা কলেজের সামনে। তিনি তার এক বোনকে সাথে নিয়ে একটি রিকসাযোগে চাঁচড়া ডালমিল এলাকায় তার ভগ্নিপতির বাড়িতে যাচ্ছিলেন। রিকসাটি পৌরসভার সামনে পৌঁছলে পিছন থেকে একটি মোটরসাইকেলে করে দুইজন উষার হাতে থাকা ব্যাগটি কেড়ে নিয়ে দ্রুত চলে যায়। ব্যাগ কাড়ার সময় ঊষা চলন্ত রিকসা থেকে পড়ে আহত হন। সংবাদ পেয়ে সেখানে গিয়ে ঊষাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। কিন্তু তিনি থানায় কোনো অভিযোগ দিতে চাননি। তার ব্যাগে সামান্য কিছু টাকা ছিল বলে তিনি জানিয়েছেন।