জুয়া খেলার অভিযোগে জীবননগর পৌরমেয়রের ড্রাইভারসহ আটক ১৩

প্রতীকী ছবি

✍ জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে পৌরমেয়রের ড্রাইভারসহ ১৩ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে উপজেলার রঘুনন্দনপুর থেকে তাদের আটক করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে নগদ টাকা ও জুয়া খেলার সরঞ্জামাদিসহ তিনটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

জীবননগর থানার এসআই সাইদুজ্জামান সাইদ বলেন, শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার বাঁকা ইউনিয়নের রঘুনন্দনপুর গ্রামে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে ১৩ জন জুয়াড়িকে আটক করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে নগদ ৪০ হাজার টাকাসহ জুয়া খেলার সরাঞ্জামাদি ও তিনটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- উপজেলার লক্ষীপুরের আব্দুল আজিজের ছেলে জামাল হোসেন (৩২), রবিউল ইসলামের ছেলে ইসাহক আলী (৩৪), জীবননগর বদ্দিপাড়ার রইস উদ্দিনের ছেলে মুরাদ হোসেন খুদু (৪২), লক্ষীপুরের মনোয়ার হোসেনের ছেলে আব্দুল মান্নানা, নারায়ণপুরের শহিদুল ইসলামের ছেলে সোহাগ (২৮), জীবননগর মহানগর উত্তরপাড়ার আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে মিল্টন (৩৪), লক্ষীপুর ব্রিজপাড়ার রুহুল আমিনের ছেলে আব্দুল হাকিম (৩৫), নারায়ণপুরের শুকুর আলীর ছেলে লিটন (৩২), লক্ষীপুরের দীন মোহাম্মদের ছেলে আলামিন (৩৫), প্রতাপপুরের নুর সরদারের ছেলে আলফাজ (৪০), জীবননগর বাজারপাড়ার সাইদের ছেলে জীবননগর পৌরমেয়রের ব্যাক্তিগত গাড়ির ড্রাইভার ওলিয়ার রহমান (৪০), নারায়ণপুরের ওয়াহেদ আলীর ছেলে জাহিদ হোসেন (৩৮) ও দোয়ারপাড়ার হুড়ো মোল্যার ছেলে মানিক (৩০)।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ঘটনাস্থলে দীর্ঘদিন ধরে জুয়া খেলা চলে আসছিল। শুধু তাই নয়, সেখানে মদ-জুয়াসহ নারীদের নিয়ে ফুর্তি করা হত। জুয়ার আসরটি প্রভাবশালীরা চালিয়ে আসার কারণে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস পেতো না।

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ গনি মিয়া বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রঘুনন্দনপুর গ্রামের জনৈক কাশেম আলীর বাড়ির পার্শ্বে একটি স্থানে জুয়ার বোর্ড বসাতো একটি জুয়াচক্র। আমরা গোপন সোর্সের মাধ্যমে ঘটনাস্থলে জুয়া বোর্ডের খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করি। এ ঘটনায় থানায় একটি নিয়মিত মামলা হয়েছে।