নিষেধাজ্ঞার সময় ইলিশ ধরায় আটক আরও ২৩২

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রজনন মৌসুমে ২২ দিনের চলমান নিষেধাজ্ঞার মধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন নদীতে ইলিশ মাছ শিকার করায় আরও ২৩২ জন জেলেকে আটক করেছে নৌ-পুলিশ।

ইলিশ ধরা বন্ধের সময় ‘খাদ্য সহযোগিতা’ পাবে জেলেরা

মা ইলিশ ধরার অপরাধে সারাদেশে আটক ১৯৮

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের ধরা হয় বলে নৌ-পুলিশ সদর দপ্তরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদা পারভীন জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “আটকদের কাছ থেকে ৩৮ লাখ ৮৩ হাজার ৭৬৩ মিটার জাল, ৬টি নৌকা ও দুই হাজার ৬৬ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়েছে ।”

উদ্ধার করা মাছ এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ফরিদা পারভীন বলেন, “আটকদের মধ্যে পাঁচজনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হয়েছে। আর বাকিদের জরিমানা ও মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।”

সারা দেশে নৌ-পুলিশের ১১৬টি থানা ও কেন্দ্র রয়েছে। নিষেধাজ্ঞা থাকা পর্যন্ত ওই থানা ও কেন্দ্রের আওতায় নৌ-পুলিশের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান ফরিদা।

ডিম পাড়ার মৌসুম হওয়ায় ‘মা’ মাছ সংরক্ষণের জন্য ৯ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ ধরা বন্ধ করেছে সরকার।

এই ২২ দিন সারা দেশে ইলিশ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাত, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ এবং দণ্ডনীয় অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে।

সরকারের দাবি, মাছ ধরায় বিধিনিষেধের ফলে ইলিশ মাছের উৎপাদন দ্বিগুণ হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার এসময় ইলিশ ধরার উপর নির্ভরশীল জেলেদেরকে খাদ্য সহযোগিতা দেওয়া হবে বলেও সরকার থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়।