২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ সাকিব!

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ২ বছরের জন্য সকল ধরণের ক্রিকেট থেকে সাকিব আল হাসানকে নিষিদ্ধ করলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। মূলতঃ আইসিসির দুর্নীতি দমন আইন লঙ্ঘনের তিনটি অভিযোগ স্বীকার করার পরই নিষিদ্ধ করা হলো সাকিবকে।

আইসিসির অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। যে তিনটি আইন লঙ্ঘনের জন্য সাকিবকে সাজা পেতে হচ্ছে, তা হলো –

১) ধারা ২.৪.৪ – জানুয়ারী, ২০১৮’তে শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের সাথে বাংলাদেশের ট্রাই-সিরিজে ও আইপিএলের ২০১৮ মৌসুমে দুর্নীতিতে জড়িত হওয়ার জন্য তিনি যে কোনও পন্থা বা আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছিলেন, তার পুরো বিবরণ এসিইউর (ACU) কাছে প্রকাশ করতে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন।

২) ধারা ২.৪.৪ – ২০১৮ সালের জানুয়ারীর ঐ ত্রিদেশীয় সিরিজে আরও একবার তাকে দুর্নীতিতে জড়িত হওয়ার জন্য যে কোনও পন্থা গ্রহণ করতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, যা তিনি গোপন করে গেছেন।

৩) ধারা ২.৪.৪ – ২৬ এপ্রিল, ২০১৮ সালে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ও কিংস একাদশ পাঞ্জাবের মধ্যকার এক ম্যাচের জন্যে তাকে দুর্নীতিতে জড়িত হওয়ার জন্য যে কোনও পন্থা গ্রহণ করতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, যা তিনি গোপন করে গেছেন।

এই সংবিধানের বিধান অনুসারে, সাকিব এই অভিযোগ স্বীকার করেছেন এবং দুর্নীতি দমন ট্রাইব্যুনালের শুনানির পরিবর্তে আইসিসির কাছে এই অভিযোগের বিষয়ে সম্মতি দিয়েছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে স্থগিতাদেশের শর্ত পূরণ করে তিনি ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গণে পুনরায় ফিরতে পারবেন।