যশোর হাউজিং এস্টেটের দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর হাউজিং এস্টেটের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ এনে মানববন্ধন করেছে অস্থায়ী ও অনিবন্ধিত বাড়ির বাসিন্দারা। তাদের দাবি, স্থাপিত বাড়ি ও জমির মূল্য বৃদ্ধির আড়ালে ৩শ’ পরিবারকে গৃহহীন করার ষড়যন্ত্র চলছে।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় প্রেসক্লাব যশোরের সামনে উপশহর বাড়ি রক্ষা কমিটির ব্যানারে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।
ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে অস্থায়ী ও অনিবন্ধিত ৩শ’ বাড়ির বাসিন্দারা অংশ নেন।
মানববন্ধন চলাকালে তারা বলেন, ১৯৬৩ সালে যশোরে হাউজিং এস্টেটে জমি বরাদ্দ শুরু হওয়ার পর ১৫শ’ বাড়ির মধ্যে ৩শ’ বাড়ি অস্থায়ী ও অনিবন্ধিত অবস্থায় রয়েছে। ১৩৯ বর্গগজ জায়গায় স্থাপিত বাড়ির মূল্য সর্বমোট ২৭শ’ টাকা নির্ধারণ ও ১৮০ কিস্তিতে পরিশোধযোগ্য ছিল। কিন্তু কর্তৃপক্ষ ধাপে ধাপে দাম বৃদ্ধি করে তিন লাখ টাকা নির্ধারণ করে এবং প্রস্তাবিত মূল্য আরও বৃদ্ধির নামে রেজিস্ট্রেশন বন্ধ করে দেয়। আকস্মিক জমির দাম কাঠা প্রতি ৮ লাখ টাকা ও ঘরের মূল্য ১ লাখ টাকা নির্ধারণ করে দখলের তারিখ হতে ২২ শতাংশ সুদসহ ১৯ লাখ টাকা নির্ধারণ করেছে। একইসাথে রেজিস্ট্রির জন্য চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এতে করে গৃহহীন হওয়ার আশংকায় পড়েছেন তিনশ’ পরিবার। এ অবস্থায় তারা স্বল্পমূল্যে জমি রেজিস্ট্রি করার জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।