ডুমুরিয়ায় গৃহহীন জুমিয়ার পাশে ইউএনও শাহনাজ

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি:
খুলনার ডুমুরিয়ার অসহায় জুমিয়া বেগমের (৮০) পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও মোছাঃ শাহনাজ বেগম। মঙ্গলবার সকালে ঘর নির্মাণের ২০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেন তিনি। তার স্বামী হাসেম শেখ আনুমানিক ১০ বছর আগে ইন্তেকাল করেছেন। বৃদ্ধা জুমিয়া ৩ মেয়ে ও ১ ছেলে সন্তানের জননী । ছেলে মতি শেখ রং মিস্ত্রির কাজ করে। মায়ের সাথে থাকে জরিনা নামে এক মেয়ে। সে স্বামী পরিত্যক্তা। রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে একটি ভাঙ্গা ছাবড়া ঘরের ছাউনির তলে মানবেতর জীবন যাপন করছেন মা ও মেয়ের পরিবার। অর্থের অভাবে মেরামত করতে পারছেনা ঘরের ছাউনি। একটু বৃষ্টি পড়লে বারান্দায় জমে যায় পানি। ৪ সন্তানের জননী হয়েও বৃদ্ধা বয়সে জুমিয়াকে মাঝে মধ্যে ভিক্ষা করতে হয়।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলার চিংড়া গ্রামের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা জুমিয়া বেগম(৮০)। ওয়াপদার নিচে খাস জমির উপর স্বামীর সংসারে অত্যন্ত অসহায়ভাবে জীবন কাটছে তার। ওই এলাকায় প্রকল্প পরিদর্শনে যেয়ে বৃদ্ধার বাড়িতে উপস্থিত হন ইউএনও। গতকাল মঙ্গলবার সকালে বৃদ্ধা জুমিয়ার ঘর নির্মাণের জন্য তাকে ২০ হাজার টাকা অনুদানের চেক দেয়া হয়েছে। এসময়ে জুমিয়া আবেগে আপ্লুত হয়ে কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘কোনদিনও এতগুলো টাকা জোগাড় করতে পারতাম না। এ টাকা দিয়ে আমার ঘর ঠিক করে নেব। আর থাকা নিয়ে চিন্তা করা লাগবে না। আল্লার কাছে শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করি।’
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ শাহনাজ বেগম বলেন, সমাজের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো সকলের দায়িত্ব। সেই দায়িত্ববোধ থেকেই অসহায়দের জন্য কিছু করার চেষ্টা করছি। ওই বৃদ্ধা যে কষ্টে রয়েছে তা দেখে অত্যান্ত ব্যথিত হলাম।
এদিকে গত সোমবার চুকনগর বাজারের হতদরিদ্র কৃষ্ণপদ দাসকে ঘর মেরামতের জন্য ১৫ হাজার টাকা ও ২ বান ঢেউটিন দিয়ে সহায়তা করেন ইউএনও।