কেশবপুরের ইউএনও মিজানূর বদলি

নিজস্ব প্রতিবেদক:
যশোরের কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিজানূর রহমানকে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক পত্রে তাকে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদে বদলির আদেশ দেয়া হয়েছে।
শুক্রবার রাতে মোবাইলে ফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারি। তিনি বলেন, মিজানূর রহমানকে জনস্বার্থে মাগুরার মহম্মদপুরে বদলি করা হয়েছে।
এদিকে, কেশবপুরে দুর্গাপূজার প্রতিমা বিসর্জন নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানূর রহমান পূজা পরিচালনা কমিটির নেতাদের গালিগালাজ ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগ ওঠে। বুধবার (১৩ নভেম্বর) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ বিষয়ে কেশবপুরে তদন্ত হয়।
জানা যায়, গত ২০ অক্টোবর পূজা উদযাপন পরিষদ কেশবপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক সুকুমার সাহা মন্ত্রিপরিষদ সচিব বরাবর অভিযোগ করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, সম্প্রতি সম্পন্ন হওয়া দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীর দিনে উপজেলায় ৯৩ পূজা মণ্ডপের মধ্যে ৫টি মন্দির ব্যতীত সব প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়। ৫টি মন্দিরের প্রতিমা কেন বিসর্জন দেয়া হয়নি জানতে ৯ অক্টোবর ইউএনও মিজানুর রহমান পূজা পরিচালনা কমিটির নেতাদের তার দফতরে ডেকে আনেন। সেখানে নেতাদের ইউএনও রাগান্বিত হয়ে প্রতিমা বিসর্জন না দেয়ায় অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করেন। তিনি দুর্গা প্রতিমা সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ শব্দ ব্যবহার করেন। ১৩ নভেম্বর যশোরের স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক নূর-ই-আলম অভিযোগের তদন্ত করেন। যদিও ইউএনও মিজানূর রহমান তার বিরুদ্ধে ওঠা অসদাচারণ ও কটূক্তিপূর্ণ বক্তব্যের কথা অস্বীকার করেছেন।