তেলেঙ্গানার ধর্ষণকারীদের পিটিয়ে মারা উচিত, বললেন জয়া বচ্চন

নিউজ ডেস্ক : ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যে তরুণী পশুচিকিৎসককে ধর্ষণ ও খুনের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে দোষীদের ‘জনসমক্ষে পিটিয়ে মারা উচিত’ বলে সংসদে দাঁড়িয়েই মন্তব্য করেছেন রাজ্যসভার সাংসদ জয়া বচ্চন।

সোমবার লোকসভা এবং রাজ্যসভায় সরকার ও বিরোধী পক্ষের সব সাংসদই ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। প্রয়োজনে সরকার আরো কঠোর আইন করতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার তেলাঙ্গানার রাঙ্গা রেড্ডি জেলায় এক যুবতী পশু চিকিত্‍সককে নৃশংসভাবে ধর্ষণ ও পেট্রল দিয়ে পুড়িয়ে মারার ঘটনা ঘটে। এদিন স্থানীয় সময় সকালে রাজ্যের রাজধানী হায়দরাবাদের কাছ থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার হয়।

তারপর থেকেই ভারতজুড়ে মানুষ এ ঘটনার বিরুদ্ধে তীব্র ধিক্কার জানাতে প্রতিবাদ মিছিল করছে। সোমবার সংসদের রাজ্যসভা এবং লোকসভা দু’কক্ষেই ঘটনাটি নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন বিরোধীরা।

ওই আলোচনাতেই রাজ্যসভায় সমাজবাদী পার্টি সাংসদ জয়া বচ্চন বলেন, “কথাটি শুনতে কঠোর হলেও আমি বলব, এ ধরনের মানুষদেরকে জনসমক্ষে নিয়ে আসা উচিত এবং পিটিয়ে মারা উচিত।”

ধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় জড়িত চার অভিযুক্তকেই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। ধৃতদের কঠোরতম শাস্তি দেওয়ার দাবি উঠেছে গোটা দেশ থেকে।

নারী অধিকার নিয়ে সোচ্চার জয়া বচ্চনের নেতৃত্বে সোমবার সংসদে এমপি’রা নির্যাতিতদের জন্য ন্যায়বিচারের দাবি তুলেছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

জয়া বলেছেন, “আমি মনে করি এ বার সময় এসেছে… নির্ভয়া হোক বা কাঠুয়া কিংবা তেলঙ্গানা—মানুষ চায়, সরকার এর সঠিক ও নির্দিষ্ট জবাব দিক। আমি মনে করি, এটাই মোক্ষম সময়।”