বাঁকড়ায় পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে গাছ কেটে সাবাড়

এম আলমগীর, বাঁকড়া (ঝিকরগাছা):
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের মাটশিয়া গ্রামে পারিবারিক কলহের জের ধরে এক কৃষকের মেহগনি গাছসহ তরকারির ক্ষেত কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে পক্ষপাত দুষ্টের অভিযোগ উঠেছে।
জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে মাটশিয়া গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে শরিফুল ইসলাম ও আব্দুর রবের ছেলে আহসান কবীর ওরফে হুমায়ুন কবীরের সাথে গন্ডগোল বাধে। এ সময় আহসান কবীর, তার মা তোহরা বেগম ও বোন ইভা খাতুন চাইনিজ কুড়াল ও লাঠি নিয়ে শরিফুল ইসলামকে মারতে আসে। স্থানীয় প্রতিবেশীদের সাহায্যে শরিফুল ইসলাম প্রাণে বেঁচে যান। পরে বিষয়টি নিয়ে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ করলে এএসআই মিজানুর রহমান ঘটনার তদন্তে আসেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ পক্ষপাত দুষ্ট আচরণ করেন।
এদিকে ঘটনায় পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় রাতে শরিফুল ইসলামের বড় ভাই মাহাবুর রহমান বিশ্বাসের মাঠে লাগানো ২৫০ টি মেহগনি গাছ, ২০ টি পেঁপে গাছ, মানকচু ও সাত কাঠা জমির পটল ক্ষেত কেটে দিয়েছে আহসান কবীর গংরা। এতে করে ওই কৃষকের প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।
এ ব্যাপারে মাহাবুর রহমান বিশ্বাস জানান, তার আর কোন উপার্জনের উৎস নেই। এই চাষের উপর তার সংসার চলে।
শরিফুল ইসলাম জানান, আমাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে আহসান চাইনিজ কুড়াল নিয়ে এসেছিল। প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় প্রাণে বেঁচে গিয়েছি।
এ ব্যাপারে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই মিজানুর রহমান জানান, দুই পক্ষ যখন এসেছিল তখন সন্ধ্যা হয়ে গিয়েছিল। ঘটনায় বুধবার ঝিকরগাছা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।