বৃষ্টির পরে ফের হাড় কাঁপানো শীত

নিজস্ব প্রতিবেদক : বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি শুক্রবার সারাদিনই থেমে থেমে ঝরেছে। যশোর শহরে  সকাল ১১টার দিকে রোদ ঝলমলে আলো কিছু সময় থাকলেও দুপুর ১টার পর থেকে ফের ঝিরঝির বৃষ্টি হতে থাকে। বৃষ্টি থামলেই তাপমাত্রা হ্রাস পাবে বলে জানিয়েছে যশোর ম্যাট অফিস।

যশোরে বিমান বাহিনী নিয়ন্ত্রিত আবহাওয়া অফিস থেকে জানাগেছে, সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে । সকালে যশোরে সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ছিলো ১৫ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দিনের তাপমাত্রা তেমন হ্রাস পায়নি। তবে বৃষ্টি ও বাতাসের কারণে শীতের তীব্রতা শুক্রবার রাতে বাড়তে পারে বলে আভাস দিয়েছিলো আবহাওয়া অফিস।

সন্ধ্যার পর থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত থেমে থেমে বৃষ্টি হয়েছে। শীতের দিনে অস্বস্তিকর বৃষ্টিতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষের।

একে তো ছুটির দিন তার ওপর বৃষ্টি; তাই যশোরে সকালের রাস্তা অন্যান্য দিনের চেয়ে তুলনামূলকভাবে ফাঁকা ছিল। কর্মজীবী মানুষের অফিসে যাওয়া তাড়া নেই দেখে লেপের খোলস থেকে বের হননি। পাড়া-মহল্লায় রিকশার দেখাও কম মিলেছে।

আবহাওয়া অধিদফতের পূর্বাভাস ছিল, জানুয়ারির শুরুতে বৃষ্টি হবে। এর পরই আসছে হাড়কঁপানো শীত। এ ছাড়া আবহাওয়া অধিদফরের দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চলতি জানুয়ারি মাসে তিনটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এর মধ্যে দুটি শৈত্যপ্রবাহ তীব্র আকার ধারণ করতে পারে। মাসের বিভিন্ন সময়ে স্বাভাবিক বৃষ্টিও হতে পারে। এর ফলে গত ডিসেম্বরের চেয়ে এ মাসে শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে। গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।