‘সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান উন্নয়নে সরকারের ২শ’ কোটি টাকা’

 

মিরাজুল কবীর টিটো : পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেছেন, সারাদেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান উন্নয়নে সরকার ২শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। মসজিদ, মন্দির, গীর্জাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান উন্নয়নের জন্য প্রতিটি নির্বাচনী এলাকায় ১৫ লাখ টাকা করে বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। সরকার স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি প্রতিহত করে বাংলাদেশকে একটি অসম্প্রদায়িক দেশে পরিণত করেছে। এখন সকল ধর্মের মানুষ স্বাধীনভাবে ও নিরাপদে এদেশে বসবাস করছেন। ফলে কোন সংখ্যালঘুর উপর অত্যাচার নির্যাতন হয় না।

গতকাল শুক্রবার দুপুরে শহরের বেজপাড়ার নাট মন্দির কমপ্লেক্স নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তুর স্থাপন ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশের সংবিধানে ধার্মীয় নিরপেক্ষতা এনেছে। যাতে করে দেশে সকল ধর্মের মানুষ নিজেদের অধিকার নিয়ে শান্তিতে বসবাস করতে পারেন। নাট মন্দিরে ২০ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। তবে মন্দিরের দ্রুত উন্নয়নের জন্য সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

বেজপাড়া পূজা সমিতি মন্দিরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফণী ভূষন পালের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্যবসায়ী পবিত্র কাপুড়িয়া, পৌর কাউন্সিলর সন্তোষ দত্ত, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী (সিআইপি) শ্যামল দাস। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বেজপাড়া পূজা সমিতি মন্দিরের অর্থ সম্পাদক সুশীল বিশ^াস, সদস্য উৎপল ঘোষ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক উপ দফতর সম্পাদক ও হামিদপুর আল হেরা কলেজের উপাধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম তুহিন, জেলা পরিষদের মেম্বার ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান মিন্টু, শহর আওয়ামী লীগ নেতা ও পৌর কাউন্সিলর মোকসিমুল বারী অপু, স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্মসম্পাদক লুৎফুল কবীর বিজু, যুবমহিলা লীগের সভাপতি মঞ্জুন্নাহার নাজনীন সোনালী প্রমুখ। পরিচালনা করেন বেজপাড়া পূজা সমিতি মন্দিরের সহসভাপতি দীপক কুমার রায়।