ভৈরব পাড়ে পার্ক হচ্ছে না !

মিরাজুল কবীর টিটো : দড়াটানা ব্রিজের পশ্চিমে ভৈরব নদের দক্ষিণ পাড়ে চিত্তবিনোদনের জন্য পার্ক হবে এমনটি শুনে আসছে যশোর শহরের বাসিন্দারা। দীর্ঘদিন ধরে আলোচিত এ পার্কটি জায়গার অভাবে শেষ পর্যন্ত নির্মাণ করা যাবে না এমনটি জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। অবশ্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ বলছে ভৈরব নদের খননের পর ১০ মিটার জায়গা অবশিষ্ট থাকবে ।

গত বছর ২৮ মার্চ ভৈরব নদ খননের লক্ষ্যে যশোরের জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড দড়াটানা ব্রিজের পশ্চিম পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে। নভেম্বর মাসে ভৈরব নদ খনন কাজ শুরুর সিদ্ধান্ত নিলেও শুরু করতে পারেনি পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। খনন কাজ শুরু করা হয় চলতি মাসে। খনন আগেই সড়ক ও জনপথ বিভাগ ভৈরব নদের দক্ষিণ পাশে রাস্তা নির্মাণ করেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ জানান ভৈরব নদ ৪৫ মিটার চওড়া  ও ১০ ফুট গভীর খনন করা হবে। খননের লক্ষ্যে ভৈরব নদের থেকে কাদা অপসারণের কাজ হচ্ছে। কাদা উত্তোলনের পর মাটি কাটা শুরু হবে। তবে ভৈরব পাড়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পর তৎকালীন জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেছিলেন ভৈরব নদ খননের পর নদের দক্ষিণ পাশে শহরবাসীর বিনোদনের জন্য পার্ক করা হবে। কিন্তু বর্তমানে ভৈরব নদ খননের পর পার্ক করার মতো জায়গা থাকছে না। পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেয়া তথ্যানুযায়ী এমনটি জানা গেছে। তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী ভৈরব নদ ৪৫ মিটার চওড়া খনন করা হবে। এ মাপে খনন করা হলে অন্য কিছু করার জায়গা থাকছে না। তারপরও পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শাহারিয়ার সরকার জানান ভৈরব নদের দক্ষিণ পাশে ১০ মিটার জায়গা রাখা হবে পার্ক করার জন্য। তবে খনন কাজ শেষ না হলে কিছুই বলা যাবে না। যশোরের জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ জানান ভৈরব নদ খননের পর পার্ক করার জায়গায় না থাকার সম্ভাবনা বেশি। এ জন্য পার্ক করার সিদ্ধান্ত আপাতত নেই।