বসন্তে ভালোবাসার উচ্ছ্বাস

বিল্লাল হোসেন:
১৪ ফেব্রুয়ারি। ফাল্গুন আর ভালোবাসার উচ্ছ্বাসে মুখর ছিলো নানা বয়সের মানুষ। এদিনের রৌদ্রজ্জল সকাল, রুপালী দুপুর আর মায়াবী রাত ছিলো কেবলই ভালোবাসার ক্ষণ। আগুন রাঙা ফাগুনের দিন ভালোবাসা দিবস হওয়ায় প্রেমিক প্রেমিকাদের মনে উৎসবের মাত্রা বেড়ে যায়। যশোরের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে ছিলো উপচে পড়া ভিড়। শুধু প্রেমিক-প্রেমিকা নয় স্বামী -স্ত্রী পিতা-মাতাসহ নানা সম্পর্কের মানুষের পদচারণায় মুখরিত ছিলো পরিবেশ। বাসন্তি পোশাক ও চুলে ভালোবাসার সিক্ত গোলাপ গুজে প্রকাশ করেছে ফাগুন ঝরানো ভালোবাসার মাত্রা। ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদিকে, ‘এন্টি লাভ অর্গানাইজেশনের মানববন্ধনে বিয়ের আগে প্রেম না করার শপথ করেছে তরুণ তরুণীরা। আয়োজন করা হয় রক্তদান উৎসবের। গাছের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করেন গাজী আব্দুল ওয়াহেদ।
যশোর শহর ঘুরে দেখা গেছে, বসন্তের প্রথম দিন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে এক অন্যরকম দিন পার হলো মানুষের। এদিন সকাল থেকেই যশোরের রাস্তাগুলোতে চলাচল শুরু হয় তরুণ-তরুণীদের। হাতে ছিলো লাল গোলাপ, রজনীগন্ধা ফুল ও নানা উপহার সামগ্রী। তরুণ তরুণীদের মনের উঠোনে বইতে থাকে ভালোবাসার উতল হাওয়া। যেনো তারা একে অপরকে বলছে শুধু ভালোবাসি তোরে। দুই দিবসকে ঘিরে শহরের ফুল ব্যবসায়ীরা যে পসরা সাজিয়েছিলো তা ছিলো চোখে পড়ার মতো। দাম বেশি হওয়ার কারণে ফুলের দোকানগুলোতে খুব বেশি ভিড় না থাকলেও হোটেল-রেস্টুরেন্টগুলোতে ছিলো মানুষের সরব উপস্থিতি। তরুণ তরুণীদের পাশাপাশি শুক্রবার সরকারি ছুটির দিন হওয়ায় অনেকেই পরিবার নিয়ে জড়ো বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রে। যশোর শহর ও শহরতলীর বিনোদন পার্কগুলোর পরিবেশ মুখরিত ছিলো। অনেকেই ভালোবাসা বিনিময়ের জন্য ছুটে যায় সেখানে। ভালোবাসার মানুষকে কাছে পেয়ে কিছু সময় কিছু উপহার বিনিময় করছে তারা। হরেক রকমের ফুলের ভিড়ে সবাই লাল গোলাপককে বেশি প্রাধান্য দেয়। অনেকেই আবার বই বা কার্ড উপহার দেয়ার ফাঁকে প্রেয়সীর চুলে ভালোবাসায় সিক্ত গোলাপ কলি গুজে দিয়ে প্রকাশ করে ভালোবাসার মাত্রাটা। বসন্তের পোশাক পরে হাতে হাত রেখে ঘুরেছে অনেকেই। যশোর পৌর পার্ক, কালেক্টরেট পার্ক, উপশহর পার্ক, জেস গার্ডেন, বিনোদিয়া ফ্যামেলি পার্ক, বোটক্লাব, বিমানবন্দর বাইপাস সড়ক ছাড়াও তরুণ-তরুণীরা জড়ো হয়েছিলো যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন ক্যাম্পাসে। বসন্ত প্রেম আর রোমান্টিকতার মধ্য দিয়ে তাদের দিন অতিবাহিত হয়। এদিকে, এদিন বেলা ১২ টায় যশোর রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সামনে রক্তদান উৎসব উদ্বোধন করেন পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি যশোর ইউনিট, আমার যশোর ও উৎসব কম্পিউটার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে রক্তদান উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন গ্রামের কাগজ সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, প্রেসক্লাব যশোরের সম্পাদক আহসান কবীর, উৎসব কম্পিউটার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তা অজয় দত্ত প্রমুখ। আবার শহরের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে মানুষের মাঝে গাছ বিতরণ করেন বৃক্ষপ্রেমিক গাজী আব্দুল ওয়াহেদ। তিনি প্রকাশ করেছেন গাছের প্রতি তার অনেক ভালোবাসা। এছাড়া শহরের নীলগঞ্জ শাহাপাড়ায় স্বেচ্ছায় রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও রক্ত সংগ্রহ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মুক্তির সন্ধানে এবং লাইফ ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক সমিতির (২২৭) সাবেক সভাপতি আজিজুল আলম মিন্টু। এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা ইকরাম হোসেন টগর, মোকছেদ আলী বিশ্বাস, বিএম লক্ষী, জুলু মিয়া , মীর আবু সাঈদ, আব্দুল জব্বার , নজরুল ইসলাম, মুক্তির সন্ধানের সভাপতি ইব্রাহীম হোসেন, ছাত্রলীগের নেতা সাইফুল ইসলাম বনি প্রমুখ। এদিকে, বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে মানববন্ধন করছে যশোরের ‘এন্টি লাভ অর্গানাইজেশন।’ বিয়ের আগে প্রেম নয় পড়াশুনায় মন চাই, প্রেম করুন কিন্তু মানুষকে ভালোবাসুন, নষ্ট প্রেম করবেন না, মাদক ধরবেন না সহ নানা স্লোগান সংবলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন ‘এন্টি লাভ অর্গানাইজেশন’ এর সদস্যরা। মানববন্ধনে তরুণ তরুণীরা শপথ করেন বিয়ের আগে প্রেম নয়। সংগঠনের চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান জানান, বিয়ের আগে প্রেম না, মাদকে গ্রহণ না করে জীবনকে ভালোবাসবো। সবার মাঝে বার্তা পৌঁছে দিতে এই মানববন্ধন। তিনি আরো জানান, ২০১৫ সাল থেকে ভালোবাসা দিবসে এন্টি লাভ অর্গানাইজেশনের ব্যানারে জীবনকে ভালোবাসার প্রচারণা চালানো হচ্ছে। ওই সালে প্রেমে প্রতারণার শিকার হয়ে আমাদের এক মেধাবী সহপাঠীর অকাল মৃত্যুর হয়েছিলো।
সম্মিলিত সামাজিক জোট যশোরের উদ্যোগে বেলা ১১টায় যশোর শহরের মাওলানা শাহ আব্দুল করিম রোডস্থ আইডিয়া পিঠা পার্কে শহরের নিম্নবিত্ত পরিবারের কিছুসংখ্যক শিশুর সাথে ভালোবাসা ও ঋতুরাজ বসন্তের শুভেচ্ছা বিনিময় করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত সামাজিক জোট যশোরের উদ্যোক্তা ও রাঙাপ্রভাত যশোর এর নির্বাহী পরিচালক শরীফ এ. মাসউদ হিমেল, জোটের আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বন্ধন এর সভাপতি মোঃ মুর্শিদ হাসান ইমন, জোটের শরিক সংগঠন তারুণ্যের ছোঁয়ায় পরিবর্তন সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রুবেল হোসেন,বাংলাদেশ ছাত্রবন্ধু ফাউন্ডেশন এর সভাপতি শরীফ নোবেল, আইডিয়া সমাজ কল্যাণ সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানজিয়া জাহান মমতাজ,স্বপ্ন ছোঁয়া ফাউন্ডেশন এর সভাপতি ইল্লীন জামান, জাগো কল্যাণ সংস্থার সভাপতি আল মাফি রিয়াল, সমাজকর্মী ডালিয়া জামান, হৃদয়, আরজ, মিঠু প্রমুখ।