কালীগঞ্জে ২শ’ বছরের পুরাতন মুদ্রা উদ্ধার

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে দুইশ’ বছরের পুরাতন মুদ্রা উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রামে মাটি কাটার সময়ে ওই মুদ্রা পাওয়া গেলে শ্রমিক ও স্থানীয়রা কুড়িয়ে নিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানার পুলিশ কয়েক দফায় সেখানে অভিযান চালিয়ে ৪৩ সিলভার কালারের কয়েন উদ্ধার করে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দুপুরে উপজেলার জামাল ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে।

স্থানীয়রা জানান, কালীগঞ্জ উপজেলার পূর্বে জামাল ইউনিয়নের গ্রাম গোপালপুর গ্রামের কৃষক সুদিপ দে’র চার পুরুষ পূর্বের ২শ’ বছরের একটি পুরাতন মাঠির ঘর ছিল। ১৫ দিন আগে পুরাতন সেই ঘর ভেঙে মেঝের মাটি কেটে পান বরজে নিয়ে যা্িচ্ছল। সোমবার মাটি কাটার সময়ে পাওয়ার ট্রলির চাকার সাথে বেরিয়ে আসে বেশকিছু মুদ্রা।

বাড়ির মালিক সুনিল দে’র ভাই সুদিপ কুমার দে জানায়, তার দাদার বাবার অর্থাৎ চার পুরুষ আগের গোপলপুর গ্রামে এই মাটির ঘরটি তৈরি করেন। তখন থেকেই পর্যায়ক্রমে এই ঘরে আমরা বসবাস করে আসছি। সম্প্রতি ঘরটি ভেঙে মেঝের মাটি মাঠের পান বরজে নেয়া হচ্ছিল। সে সময় মাটির নীচ থেকে রৌপ মুদ্রা দেখা যায়। এসময় তার ভাবি করুণা রাণী দে ২৬ টি কয়েন পায়। যেগুলো সোমবার সন্ধ্যা রাতে সাদা পোশাকের পুলিশ এসে নিয়ে গেছে। পরে রাতে আরো দু’দফায় পুলিশ বাড়িতে এসে তল্লাসি করে।

জামাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোদাচ্ছের হোসেন জানান, ঘটনাটি লোকমুখে শুনেছেন, কিন্তু নিজে দেখেননি। তিনি শুনেছেন একটি পুরাতন বাড়ির মাটি কাটার সময় রৌপ মুদ্রা পাওয়া গেছে।  যা উপস্থিত সবাই যে যার মতো কুঁড়িয়ে নিয়ে গেছে।

মুদ্রা উদ্ধারকারী কালীগঞ্জ থানার এএসআই সুজাত আলী জানান, সংবাদ পেয়ে সন্ধ্যা রাতে ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৪৩ টি মুদ্রা উদ্ধার করা হয়। বাকি মুদ্রা গুলো স্থানীয়রা আত্মসাৎ করেছে। উদ্ধার হওয়ার মুদ্রার মধ্যে ২২ টিতে রাণীর ছবি ও ১৯ টি ব্রিটেনের রাজার ছবি রয়েছে। উদ্ধার করা মুদ্রাগুলো বাংলাদেশ সরকারের প্রতœতাত্ত্বিক অধিদফতরে দিয়ে দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সূবর্ণা রাণী সাহা জানান, সাংবাদিকদের কাছ থেকে জানার পর থানার ওসিকে বিষয়টি দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি।