কোটচাঁদপুরে তিন বছরের শিশুকে কুপিয়ে হত্যা

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কোটচাঁদপুর রেলস্টেশন পাড়ার বাবর আলীর শিশু কন্যা জান্নাতুল ফেরদৌসকে (৩) নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে ভাড়াটিয়ার ঘরের মধ্যে এ খুন হওয়ায় ভাড়াটিয়া দুলালের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

নিহত জান্নাতুল ফেরদৌসের ভাই ইউসুফ জানান, মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে তার বোনকে ভাড়াটিয়া দুলালের ঘরের মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে মা খায়রুন বেগম চিৎকার করেন।এসময় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মা খায়রুন বেগম জানান, তাদের বাড়ির ভাড়াটিয়া দুলাল জান্নাতুল ফেরদৌসকে হত্যা করে পালিয়েছে। কি কারণে তাকে তিনি বলতে পারেনি।

এদিকে শিশুটিকে ভুড়ি বের করে দেয়া, এক হাতের কব্জি প্রায় বিচ্ছিন্ন করাসহ পায়ে ধারালো কোপের চিহ্ন রয়েছে। এমন নৃশংস হত্যার পিছনে শুধু বাড়ির ভাড়াটিয়াই দায়ী এমন অভিযোগ মানতে অনেকেই নারাজ। তারা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ভিতরের কোনো কারণ ছাড়া বাড়ির মধ্যেই তিন বছরের শিশু হত্যা হতে পারে এটা মানা যায় না।

এদিকে ভাড়াটিয়ার আসল বাড়ি কোথায় তা কেউ বলতে পারেনি। দুলাল নামের ওই ভাড়াটিয়া তিন মাস আগে একাই ওই বাসা ভাড়া নেন এবং পুরানো কাপড়ের ব্যবসা করতেন বলে জানা গেছে ।

কোটচাঁদপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুবুল আলম বলেন, আমি নিজে হাসপাতালে নিহত শিশুটিকে দেখে এসেছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। হত্যার ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে।