ফেরার অপেক্ষায় বেনাপোল ইমিগ্রেশনের সামনে ভারতীয় শতাধিক শিক্ষার্থী

শেখ কাজিম উদ্দিন, বেনাপোল : বেনাপোল আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে মানবেতর জীবন যাপন করছে বাংলাদেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজপড়–য়া ভারতীয় শতাধিক শিক্ষার্থী। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভারতীয় ইমিগ্রেশন কর্তৃক বাংলাদেশে অবস্থানরত ভারতীয়দের দেশে ফেরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করায় দু’দিন (সোমবার ও মঙ্গলবার) ধরে তারা বেনাপোল প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে অবস্থান করছে।

দেশে ফেরা চেষ্টাকারি শিক্ষার্থীরা ঢাকার গাজিপুর ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ ও কমিউনিটি বেস্ট মেডিকেল কলেজে পড়াশোনা করে। তারা ভারতের বিভিন্ন প্রদেশের বাসিন্দা।

মঙ্গলবার বিকেলে বেনাপোল আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে অবস্থান করা শিক্ষার্থীরা বলেন, নিজ দেশে প্রবেশ করতে না পেরে এবং তাদের কাছে প্রয়োজনীয় টাকা না থাকায় তারা খুবই হতাশার মধ্যে পড়েছে।

এ বিষয়ে ভারতের কাশ্মীর প্রদেশের অভিলাশ মুখার্জি ও অনিমা গোস্বামী বলেন, আমরা ঢাকার গাজীপুর ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ ও ঢাকার কমিউনিটি বেস্ট মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী। করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ায় কলেজ ছুটি দেয়া হয়েছে।  যে কারণে আমরা শতাধিক শিক্ষার্থী ছুটি পেয়ে নিজ দেশে যাওয়ার উদ্দেশ্য সোমবার বিকেলে এবং মঙ্গলবার সকালে বেনাপোল চেকপোস্টে পৌঁছায়। কিন্তু আমাদের কাছে অতিরিক্ত টাকা না থাকায় আমরা কোনো আবাসিক হোটেলে থাকতে পারছি না। এমনকি আমাদের খাবার ক্রয় করে খেতেও অসুবিধা হচ্ছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের (ওসি) আহসান কবির বলেন, ভারতীয় শিক্ষার্থীদেরকে ছাড়তে আমাদের কোনো বাধা নেই। কিন্তু সোমবার (২৩ মার্চ) বিকেল ৫ টার সময় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ এক পত্র মারফত বেনাপোল ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারতীয়দের স্বদেশে ফিরতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এরপর থেকে তারা কোন যাত্রী গ্রহণ করছে না। ফলে এসব শিক্ষার্থীরা বিপাকে পড়েছে। তবে ভারতে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা নিজ দেশে ফিরতে পারবেন বলেও জানান তিনি।