কারাবন্দি গণমাধ্যমকর্মীদের মুক্তি চায় আর্টিকেল নাইন্টিন

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক : দেশে কারাবন্দি গণমাধ্যমকর্মীদের মুক্তির দাবি জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক মতপ্রকাশের অধিকার বিষয়ক মানবাধিকার সংগঠন আর্টিকেল নাইনটিন। এছাড়া দেশের অধিকাংশ কারাগারে সাধারণ বন্দিরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হবার সর্বোচ্চ ঝুঁকি বহন করছেন বলেই মনে করে সংগঠনটি।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে আর্টিকেল নাইনটিন উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

আর্টিকেল নাইনটিন বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সল বলেন, আমরা জেনেছি হয়রানিমূলক মামলায় দেশের বিভিন্ন কারাগারে বন্দি রয়েছেন, বাউলশিল্পী শরিয়ত সরকার, রীতা দেওয়ান, গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নূর মোহাম্মদ, চুনারুঘাট সাংবাদিক সমিতির সভাপতি মো. ওয়াহেদ আলীসহ বেশ কিছু গণমাধ্যমকর্মী। জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান মিশেল ব্যাশেলেট করাবন্দিদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ভিন্নমত প্রকাশের জন্য আটক ব্যক্তিসহ যাদের আটকে তেমন কোনো আইনগত ভিত্তি নেই তাদের মুক্তি দেওয়ার কথা বলেছেন।

গত ১০ এপ্রিল কুমিল্লার সাংবাদিক মাহফুজ বাবুকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময়ে তার মোবাইল ফোনটিও জব্দ করা হয়। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে পুলিশ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মাহফুজ বাবুর সহকর্মী ও পরিবারের অভিযোগ, তাকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ফাঁসানো হয়েছে।

আর্টিকেল নাইনটিনের দাবি, দেশে যেসব গণমাধ্যমকর্মী অভিযুক্ত বা সাজা ভোগ করছেন সবাইকে দ্রুত মুক্তি দেওয়া হউক।

ফারুখ ফয়সল আরও বলেন, আমাদের ভুলে গেলে চলবে না যে, সাংবাদিকতা একটি দায়িত্বশীল ও স্বাধীন পেশা। ফলে স্বাধীন মতপ্রকাশ এবং সঠিক তথ্য জনগণের সামনে তুলে ধরা তাদের প্রধান কর্তব্য। তারা তাদের এই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে দেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮সহ বিভিন্ন হয়রানিমূলক মামলার শিকার হন। যা খুবই দুঃখজনক ও উদ্বেগের কারণ।