রমজান উপলক্ষে ইন্দোনেশিয়ার বিমানে কোরআন বিতরণ

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক : পুণ্যময় রমজানের শেষ দশক চলছে। এ উপলক্ষে ইন্দোনেশিয়ার পতাকাবাহী বিমানসংস্থা গারুদা ইন্দোনেশিয়া বিশেষ ফ্লাইট সার্ভিসের অংশ হিসেবে যাত্রীদের পবিত্র কোরআন সরবরাহ করছে। খবর দ্য জাকার্তা পোস্টের।

গারুদা ইন্দোনেশিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট কর্পোরেট সেক্রেটারি এম ইখসান রোসান সরকারি এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা রমজানের শেষ ১০ দিন আমাদের মুসলমান যাত্রীদের সহজতা-স্বাচ্ছ্ন্দ্য ও সুবিধা দিতে চাই। কোরআন বিতরণের এই ব্যবস্থাটি মূলত রমজান মাসে মুসলমানদের যাতায়াত সহজতর করার জন্য।

যাত্রীরা ফ্লাইট চলাকালীন বিমানের সেবক-সেবিকাদের কাছ থেকে কোরআন সংগ্রহ করে নিতে পারেন এবং গন্তব্যে পৌঁছানোর আগে ফেরতও দিতে পারেন।

এম ইখসান বলেন, যাত্রীদের সফর আনন্দঘন করার জন্য আমরা কোরআনের একটি অডিও সংস্করণও চালু করেছি, যাতে ভ্রমণকালীন ইচ্ছে করলে তারা কোরআন তেলাওয়াত শুনতে পারেন। পাশাপাশি যাত্রীরা ‘ইসলামী বিশ্ব’ মেনুর মাধ্যমে রেকর্ডিং অ্যাক্সেস করতে পারবেন।

কাসিদা বুরদার মাধ্যমে যাত্রীদের বরণ করে নিতে পাকিস্তান এয়ারলাইন্সের আয়োজন। ছবি: সংগৃহীত

মুসলিম যাত্রীদের সফর আরামদায়ক ও প্রশান্তিময় করার জন্য বিভিন্ন কোনো বিমান সংস্থার এমন ব্যবস্থা এই প্রথম নয়। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনস (পিআইএ) জনপ্রিয় ‘কাসিদা বুরদা’র মাধ্যমে স্বাগত জানানোর সিদ্ধান্ত নেয়। প্রসঙ্গত কাসিদা বুরদা হলো প্রিয়নবী মুহাম্মদ (সা.)-এর সম্মানে প্রশংসা ও স্তুতিজ্ঞাপক কবিতামালা, যা পৃথিবীতে ব্যাপকভাবে সমাদৃত।

অন্যদিকে মালয়েশিয়া এয়ারলাইনস ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় হজ ও ওমরার যাত্রীদের জন্য নিবেদিত বিশ্বের প্রথম সেবা চালু করে।