করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা হবে আরও অনেক বেশি ভয়াবহ : যুক্তরাষ্ট্র

স্পন্দন আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রাণঘাতী করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা প্রথমবারের চেয়ে অনেক বেশি ভয়াবহ হবে বলে জোর সতর্কতা জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের প্রধান রবার্ট রেডফিল্ড।

বুধবার (২২ এপ্রিল) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) ওয়াশিংটনে পোস্টে প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে মার্কিনিদের উদ্দেশ্যে এ সতর্কবার্তা উচ্চারণ করেন রবার্ট রেডফিল্ড। আসন্ন শীত মৌসুম, যখন একই সঙ্গে ঠাণ্ডাজনিত ফ্লু’র প্রাদুর্ভাবও শুরু হবে, সে সময়ে করোনার আরও বিস্তৃত প্রকোপের জন্য মার্কিনিদের জোর প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বলেন তিনি।

রেডফিল্ড বলেন, আসন্ন শীতে ফ্লুর কারণেই মার্কিন স্বাস্থ্যব্যবস্থা নাকাল হয়ে পড়বে। একই সময় করোনার প্রাদুর্ভাব বর্তমানের চেয়ে পরিস্থিতি আরও আরও আরও কঠিন করে তুলবে।

শীত মৌসুম ঘিরে মার্কিন অধিবাসীদের ফ্লুর প্রতিষেধক নিয়ে রাখার আহ্বান জানিয়ে রেডফিল্ড আরও বলেন, আমরা একইসঙ্গে ফ্লু ও করোনার মহামারির মধ্যে পড়তে চলেছি। আমরা এবারের শীতে এই মুহূর্তে চলমান করোনা মহামারির চেয়েও ভয়াবহ পরিস্থিতিতে পড়বো, তেমন আশঙ্কা আছে। আমি যখন এ সতর্কতা জানাচ্ছি, তখন অনেকেই পরিস্থিতির ভয়াবহতা অনুমান করতে পারছে না।

এর আগে ২০০৯ সালে এইচ১এন১ সোয়াইন ফ্লুর সময় যুক্তরাষ্ট্র বসন্তে (মার্চ থেকে জুন মাস) প্রথম প্রাদুর্ভাবের মুখে পড়ে। পরবর্তী সময়ে হেমন্ত ও শীত মৌসুমে (সেপ্টেম্বর থেকে মার্চ) দ্বিতীয় ধাক্কায় একই সঙ্গে মৌসুমি ফ্লু ও সোয়াইন ফ্লুর কবলে পড়ে দেশটি। তাতে করে অবস্থা ভয়াবহ হয়ে ওঠে।

করোনার তথ্য-পরিসংখ্যান গবেষণায় যুক্ত মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয় জনস হপকিন্স জানায়, এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৮ লাখেরও বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে প্রায় ৪৫ হাজার মানুষ মারা গেছেন। দেশটিতে করোনা এখনও শীর্ষ পর্যায়ের দিকেই অবস্থান করছে। প্রতিদিন হু হু করে বাড়ছে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা। সার্বিক পরিস্থিতিতে ভেঙে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্যব্যবস্থা। এর ওপর আগামী শীতে আরও বড় পরিসরে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হলে অবস্থা আরও অনেক বেশি শোচনীয় হয়ে উঠবে। শুধু যুক্তরাষ্ট্র নয়, আগামী শীত মৌসুমে করোনা বিশ্বের সব দেশের জন্যই আরও ভয়াবহ হয়ে ওঠার আশঙ্কা রয়েছে।