যশোরে দাফন-সৎকারের টাকা থেকে ঋণ পাচ্ছেন আইনজীবীরা !

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোর জেলা আইনজীবী সমিতি থেকে প্রত্যেক সদস্যকে সাত হাজার টাকা করে অনুদান দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। তবে এ অনুদান সদস্যদের মৃত্যুপরবর্তী অর্থাৎ দাফন-সৎকারের নির্ধারিত অনুদান থেকে কর্তন করা হবে। সোমবার দুপুরে সমিতির ১ নম্বর ভবন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে সভাপতি এম ইদ্রিস আলী জানিয়েছেন, এ সিদ্ধান্ত সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দের সাথে সভা করে প্রাথমিক এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সব সদস্য এ টাকা গ্রহণ করবে তা নয়। এ সিদ্ধান্তের ব্যাপারে সদস্যদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে কোনো সদস্য যদি এ সিদ্ধান্তের উপর ক্ষুদ্ধ হয়ে আবেদন করেন সে ব্যাপারেও বিবেচনা করা হবে।

সমিতির সভাপতি এম ইদ্রিস আলীর সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম, মোহায়মান হোসেন, মোহাম্মদ ইসহক, সাবেক সাধারণ, মাহাবুব আলম বাচ্চু, আফজাল হোসেন, কাজী ফরিদুল ইসলাম, আমিনুর রহমান, আবু মোর্তজা ছোট, শাহানুর আলম শাহীন, বর্তমান কমিটির সহসভাপতি খোন্দকার মোয়াজ্জেম হোসেন মুকুল, যুগ্মসম্পাদক ইমদাদুল হক ইমদাদ প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক এমএ গফুর।

সভার সিদ্ধান্তে অনুদানের টাকা নিয়ে সমিতির সদস্যদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। মৃত্যুর পর দাফন কাফন ও সৎকারের টাকা থেকে এ সাত হাজার টাকা দেয়ার সিদ্ধান্তে অনেকে হতাশা ব্যক্ত করেছেন।

করোনাকালিন সময়ে যশোর আইনজীবী সমিতির সদস্যরা সমিতি থেকে বিনাসুদে লোনের দাবি করে আসছিলেন। কিন্তু পেলেন দাফন-কাফনের টাকা বলে অভিমত সদস্যদের।

জানা গেছে, দুপুর ১২ টায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিনা সুদে লোনের জন্য  সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও বর্তমান কমিটির বেশ কয়েকজন জোর দাবি করেছিলেন। কিন্তু সমিতির নীতিনির্ধারক পর্যায়ের কয়েকজন নেতার মতের প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সমিতির সভার সিদ্ধান্ত জানতে পেরে অনেকে জানিয়েছেন, যে সাত হাজার করে টাকা দেয়ার কথা বলছে সেটা আমাদের পরিবারের প্রাপ্য। একজন আইনজীবী মৃত্যুর পর সমিতির পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক দাফন কিংবা  সৎকারের জন্য ২০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। ওই টাকা থেকে সাত হাজার টাকা এখন দেয়া হবে। যা আসলেই কষ্টদায়ক। স্ত্রী সন্তানদের পেছনে ওই টাকা মৃত্যুর আগেই খরচ করাটা দুঃখজনক বলেও মনে করেন অনেকে।

যশোর আইনজীবী সমিতির সদস্যের মৃত্যু হলে কল্যাণ ফান্ড থেকে ২০ হাজার টাকা দেয়া হয় দাফন-কাফনের জন্য। তবে করোনা দুর্যোগের সময় যারা ৭ হাজার টাকা তুলে নিবে তাদের মৃত্যুর পর পরিবারের সদস্যদের ১৩ হাজার টাকা দেয়া হবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত হয়।

করোনা দুর্যোগে সারাদেশের আইনজীবী সমিতি তাদের সদস্যদের জন্য নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বলে জানা গেছে।