যশোর দড়াটানা থেকে চাঁচড়া মোড় চারলেনে উন্নীতকরণের কাজ ফের শুরু

মিরাজুল কবীর টিটো : চার মাস পর যশোর শহরের দড়াটানা থেকে চাঁচড়া মোড় পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা চার লেনে উন্নীতকরণের কাজ গত ২৭ এপ্রিল সোমবার থেকে শুরু হয়েছে। কাজে ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ কোটি টাকা। তবে যশোর-বেনাপোল সড়কের সাথে পৌরসভার রাস্তা ফোর লেনের কাজ অর্ন্তভূক্ত করে সংশোধনের পর কাজের ব্যয় কমিয়ে দেয়া হয়েছে। ব্যয় ২১ কোটি টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে ৩২৮ কোটি টাকার পরিবর্তে ৩০৭ কোটি টাকা। রাস্তার চওড়া কমিয়ে দেয়ার কারণে ব্যয় কমে গেছে বলে জানান সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষ। এ কাজের জন্য জায়গা নেয়ার বিষয়ে জেলা পরিষদ ও ইনস্টিটিউট কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসক।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ জানায়, চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন অনেক ছোটবড় যানবাহন চলাচল করে। কিন্তু রাস্তাটি সংকীর্ণ হওয়ায় যানজটের সৃষ্টি হয়। মানুষ চলাচলের ক্ষেত্রে দুর্ভোগে পড়ে। মানুষের স্বাচ্ছন্দ্যে চলাচলের জন্য যশোর পৌরসভার ও সড়ক জনপথ বিভাগ আলোচনা করার পর এ রাস্তাটি ফোর লেন করার কাজ শুরু করার উদ্যোগ নেয়া হয় ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে। ওই সালের ৫ নভেম্বর কাজের উদ্বোধন করেন যশোরের পৌর মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। এরপর চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা চার লেনের করার কাজ যশোর-বেনাপোল সড়ক নির্মাণ কাজের সাথে নতুন করে অন্তর্ভূক্ত করা হয় । ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩২৮ কোটি টাকা। এর মধ্যে চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত দুই কিলোমিটার রাস্তা ফোর লেনের কাজের ব্যয় ধরা হয়েছিল ১০ কোটি টাকা। এই ব্যয়ের মধ্যে রাস্তাটি ফোর লেন করার সাথে রাস্তার মাঝে ডিভাইডার নির্মাণ করার উদ্যোগ নেয়া হবে। যশোর-বেনাপোল সড়কের কাজের প্রকল্পের সাথে অর্ন্তভূক্ত করার পর কাজ শুরুর লক্ষে গত ১৯ নভেম্বর ৫০ টি অবৈধ স্থাপনা চিহ্নিত করে তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলা হয়। ডিসেম্বর মাসে রাস্তা ফোর লেনের কাজ বৃষ্টির কারনে ও প্রকল্প সংশোধনের জন্য ঢাকায় পাঠানোর কারনে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। তাতে উল্লেখ করা হয় গাছে জন্য যশোর বেনাপোল সড়ক মাপ অনুযায়ী করা যাচ্ছে না। চওড়া কমিয়ে কাজ করা হবে। তিন মাস পর চলতি বছরের মার্চ মাসের শেষের দিকে প্রকল্প সংশোধন হওয়ার পর অনুমোদন হয়ে এসেছে। ২৭ এপ্রিল সোমবার চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত রাস্তার ফোর লেনের কাজ শুরু করা হয়েছে বলে জানান যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন। তিনি জানান যখন যশোর-বেনাপোল সড়কের কাজের প্রকল্পের সাথে চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত অর্ন্তভূক্ত করা হয়। তখন কাজের বাজেট যশোর বেনাপোল সড়কের নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩২৮ কোটি টাকা। এর মধ্যে চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত রাস্তার ফোর লেনের কাজের ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছিল ১০ কোটি টাকা। কিন্তু গাছের জন্য যশোর-বেনাপোল সড়ক নির্ধারিত মাপে করা যাচ্ছে না। গাছ রেখেই রাস্তার কাজ করার লক্ষে প্রকল্প সংশোধন করার পর ঢাকায় পাঠানো হয়। তাতে উল্লেখ করা হয় রাস্তার চওড়া নির্ধারিত মাপের চেয়ে কমে গেছে। এরপর প্রকল্প সংশোধনের পর যশোর বেনাপোল সড়কের কাজের ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০৭ কোটি টাকা। এ কাজের ব্যয় কমানো হয়েছে ২১ কোটি টাকা। মধ্যে চাঁচড়া মোড় থেকে দড়াটানা পর্যন্ত রাস্তার ফোর লেনের কাজের ব্যয় ১০ কোটি টাকায় রয়েছে। দ্রুত গতিতে এ কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে যশোরের যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ জানান,দড়াটা থেকে চাঁচড়া পর্যন্ত রাস্তা ফোর লেনে উন্নীত করার কাজের জন্য জায়গার প্রয়োজন হতে পারে। এজন্য জেলা পরিষদ ও ইন্সটিটিউট কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করা হচ্ছে। গত ২৯ এপ্রিল রাস্তার কাজ পরিদর্শন করেন যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ, পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কেশবপুরের সংসদ সদস্য প্রার্থী শাহীন চাকলাদার, যশোরের পৌর মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন।