যশোরে অসহায়দের মাঝে ১ হাজার ৬১৩ মেট্টিকটন চাল ও ৮০ লাখ টাকা বিতরণ

মিরাজুল কবীর টিটো : করোনা ভাইরাসের প্রভাব বিস্তারের শুরু থেকে ৩ মে পর্যন্ত যশোর জেলা প্রশাসন থেকে যশোর জেলায় অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। জেলার ৮ পৌরসভা ও ৮ উপজেলায় দেয়া হয়েছে ১ হাজার ৬১৩ মেট্টিকটন চাল, ৮০ লাখ ১৪ হাজার টাকা ও শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২১ লাখ টাকা। এর মধ্যে জেলার ৮ উপজেলায় ১ হাজার ৩৭৬ মেট্টিকটন চাল,৭৩ লাখ ১৯ হাজার টাকা ও শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২১ লাখ টাকা। ৮ পৌরসভায় ২৩৭ মেট্টিকটন চাল ও ৬ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। এ তথ্য জানিয়েছেন যশোর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ত্রাণ ও পুনবার্সন কর্মকর্তা সানোয়ার হোসেন।

বুধবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ত্রাণ ও পুনর্বাসন শাখা থেকে জানিয়েছে, যশোর জেলার ৮ উপজেলা ও ৮ পৌরসভায় বরাদ্দ ছিল ২ হাজার ৯৪ মেট্টিকটন চাল। বিতরণ করা হয়েছে ১ হাজার ৬১৩ মেট্টিকটন চাল। মজুদ আছে ৪৮১ মেট্টিকটন চাল। টাকা বরাদ্দ ছিল ৯৮ লাখ ২২ হাজার। বিতরণ করা হয়েছে ৮০ লাখ ১৪ হাজার টাকা। মজুদ আছে ১৮ লাখ ৮ হাজার টাকা। শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ বরাদ্দ ছিল ২৭ লাখ টাকা। বিতরণ করা হয়েছে ২১ লাখ টাকা। মজুদ আছে ৬ লাখ টাকা।

এর মধ্যে সদর উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ২৫৪ মেট্টিকটন চাল, ৯লাখ ৬৯ হাজার টাকা, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ৪ লাখ ১০ হাজার টাকা। মণিরামপুর উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ২৪০ মেট্টিকটন চাল, ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা, কেশবপুর উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ১৫৪ মেট্টিকটন চাল,৬ লাখ ১১ হাজার টাকা, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা। শার্শা উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ১৫৮ মেট্টিকটন চাল, ১৪ লাখ ১১ হাজার টাকা, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা। ঝিকরগাছা উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ১৬৩ মেট্রিকটন চাল, ১৭ লাখ ২১ হাজার টাকা, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা। অভয়নগর উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ১১৭ মেট্টিকটন চাল, ৪ লাখ ৬৪ হাজার টাকা,শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা। বাঘারপাড়া উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ১৩৪ মেট্টিকটন চাল,৫ লাখ ৩৩ হাজার টাকা, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা। চৌগাছা উপজেলায় বিতরণ করা হয়েছে ১৫৬ মেট্টিকটন চাল, ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা।

এদিকে যশোর পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ৮০ মেট্টিকটন চাল, ১ লাখ ৮১ হাজার টাকা, মণিরামপুর পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ২৬ মেট্টিকটন চাল,৭৯ হাজার টাকা, কেশবপুর পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ২৭ মেট্টিক টন চাল, ৮৫ হাজার টাকা, বেনাপোল পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ২০ মেট্টিকটন চাল, ৬৭ হাজার টাকা, ঝিকরগাছা পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ১৯ মেট্রিকটন চাল, ৬৫ হাজার টাকা, নওয়াপাড়া পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ২৭ মেট্টিকটন চাল, ৮৮ হাজার টাকা, বাঘারপাড়া পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ১৯ মেট্টিকটন চাল,৬৫ হাজার টাকা, চৌগাছা পৌরসভায় দেয়া হয়েছে ১৯ মেট্টিকটন চাল,৬৫ হাজার টাকা।

এ ব্যাপারে যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ জানান,করোনা ভাইরাসের কারনে যেসকল মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। তাদের মাঝে চাল,নগদ টাকা ও শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এ কার্যক্রম চলমান আছে।