সীমিত পরিসরে চলবে গণপরিবহনও

স্পন্দন ডেস্ক:করোনাভাইরাস সঙ্কটের সাধারণ ছুটি শেষে অফিস খোলার দিন ৩১ মে থেকে গণপরিবহণও সীমিত পরিসরে চলাচল শুরু হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে গণপরিবহনগুলো আগামী ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সারা দেশে চলাচল করতে পারবে বলে বুধবার জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানিয়েছেন।

তিনি সন্ধ্যায় জানিয়েছিলেন, করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সাধারণ ছুটির মেয়াদ আর বাড়ছে না। ৩১ মে থেকে অফিস খুলবে সীমিত পরিসরে।

তখন তিনি বলেছিলেন যে গণপরিবহণ আপাতত চালু হচ্ছে না, তা ১৫ জুন পর্যন্ত বন্ধই থাকছে।

ছুটি আর বাড়ছে না, ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে খুলবে অফিস

রাতে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সীমিত পরিসরে অফিস খোলা রাখাসহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী যেসব সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন, পরে সেখানে প্রধানমন্ত্রী এটা যোগ করেছেন যে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে এবং সীমিত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন চলতে পারবে।”

ঢাকাসহ সারা দেশেই গণপরিবহন চলতে পারবে কি না- এই প্রশ্নে ফরহাদ বলেন, “হ্যাঁ, সারা দেশেই চলাচল করতে পারে।

“কারণ অনেক মানুষেরই ব্যক্তিগত গাড়ি নেই, তাদেরও যাতায়াত করা প্রয়োজন। সেজন্য ১৫ দিনের জন্য সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চালু করা হবে।”

“৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত আমরা এসব নিয়মকানুন কতটুকু মানতে পারলাম সেটা দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে,” বলেন তিনি।

বর্তমানে ৯৫ শতাংশ মানুষ বাইরে বের হওয়ার সময় মাস্ক ব্যবহার করছেন দাবি করেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বাকি ৫ শতাংশকেও এর মধ্যে আনতে হবে।”

দীর্ঘদিন সব কিছু বন্ধ রাখলে অর্থনীতিসহ বেসরকারিখাতগুলো যে ক্ষতির মুখে পড়ছে সে বিষয়টি মনে করিয়ে দেন ফরহাদ।

গত মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে গণপরিবহণ বন্ধ রয়েছে। এতে জীবিকার সঙ্কটে পড়া পরিবহণ শ্রমিকরা বিক্ষোভেও নেমেছেন।