২ মাস পর দিনাজপুরে রেলপথে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি

স্পন্দন নিউজ ডেস্ক  : প্রায় দুই মাস বন্ধ থাকার পর অবশেষে দিনাজপুরের বিরল স্থলবন্দর দিয়ে রেলপথে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। এতে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমে জড়িত শ্রমিকরা।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সকালে পেঁয়াজ বোঝাই মালবাহী ট্রেনটি বিরল রেলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। পরে দুপুরে হিলি রেলস্টেশনে এসে পৌঁছে। হিলি রেলস্টেশনে খালাস কার্যক্রম শুরু হয়। যদিও সড়কপথে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি চলছিল।

দিনাজপুরের বিরল রেলবন্দর দিয়ে একটি মালবাহী ট্রেনে ভারতের নাসিক ও ভেলোর থেকে এসব পেঁয়াজ আমদানি করে হিলির পেঁয়াজ আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স রায়হান ট্রেডার্স।

হিলি স্টেশন মাস্টার তপন কুমার চক্রবর্তী জানান, ৪২টি ওয়াগানে (বগি) ১ হাজর ৬০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। আমদানিকৃত এসব পেঁয়াজ দুই দিনের মধ্যে মালবাহী ট্রেনটি থেকে খালাস করে দর্শনা বন্দর দিয়ে পুনরায় ভারতে ফেরত পাঠানো হবে।

পেঁয়াজ আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান রায়হান এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী শাহিদুল ইসলাম  জানান, ভারতের নাসিক ও ভেলোর থেকে বাংলাদেশি টাকায় ২১ টাকা কেজি দরে এসব পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে, যা হিলির পাইকারি বাজারে ২৩ থেকে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এসব পেঁয়াজ সরবরাহ হচ্ছে ঢাকা-চিটাগাংসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে।

দেশে পুনরায় পেঁয়াজ আমদানি শুরু হওয়ায় খোলা বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে আসবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এদিকে দীর্ঘ দুই মাস বসে থাকার পর কাজে যোগ দিতে পারায় শ্রমিকদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে।

বাংলাদেশ সময় ১৬৪৫ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২০