যশোরে কাঠমিস্ত্রিকে তুলে নেয়ার অভিযোগ, এসপি অফিস ঘেরাও

নিজস্ব প্রতিবেদক : শুক্রবার দুপুরে প্রশাসনের লোক পরিচয়ে সাদা পোশাকধারী কয়েক ব্যক্তি যশোর শহরের টিবি ক্লিনিক এলাকার শরিফুল ইসলাম নামে এক কাঠ মিস্ত্রিকে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় শনিবার দুপুরে স্থানীয়রা পুলিশ সুপারের কার্যালয়  ঘেরাও করে শরিফুলের মুক্তি দাবি করেছে। শরিফুল ইসলাম টিবি ক্লিনিক মোড়ের সাহেব আলী ওরফে আনজু মিয়ার ছেলে।

শরিফুল ইসলামের মা রোকেয়া বেগম বলেছেন, গত শুক্রবার দুপুর পৌনে দুইটার দিকে আশ্রম মোড়ে সিএন্ডবি মসজিদ থেকে জুম্মার নামাজ শেষে বাড়ি ফিরছিলেন শরিফুল। টিবি ক্লিনিক মোড় আয়কর অফিসের সামনে পৌঁছানো মাত্র সাদা পোশাকে পাঞ্জাবি-টুপি পরিহিত কয়েকজন লোক শরিফুলের কাছে আসে। এ সময় সেখানে রাখা তাদের সাদা রঙয়ের একটি মাইক্রোবাস ছিল। শরিফুলকে তারা জোর করে ধরে ওই মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে চলে যায়। পরে সংবাদ পেয়ে বিভিন্ন স্থানে তার কোনো সন্ধান না পেয়ে তার চাচা মিন্টু শেখ ওইদিনই কোতয়ালি থানায় একটি অভিযোগ দেন। একদিন পার হলেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। ফলে শনিবার দুপুরে স্থানীয়রা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে গিয়ে অবস্থান নেন। এ সময় তারা শরিফুলকে উদ্ধার অথবা তার মুক্তির দাবি জানানো হয়।

জানগেছে এ সময় পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে জেলা বিশেষ শাখার (ডিএসবি)’র পরিদর্শক মশিউর রহমান, চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ পরিদর্শক শাজাহান আহম্মেদ, পুরাতন কসবা ফাঁড়ি ইনচার্জ পরিদর্শক মিলন মন্ডল ও কোতয়ালি থানা পুলিশের পরিদর্শক (ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড কমিউনিটি পুলিশিং) সুমন ভক্তসহ বিভিন্ন শ্রেণির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তারা বিষয়টি দেখছেন বলে শরিফুলের পরিবারকে জানান।