একসঙ্গে কাজ করে পানিবন্দি মানুষকে বাঁচাতে হবে : এমপি বাবু

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি : খুলনা ৬ আসনের সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, পাইকগাছা-কয়রায় ১২১ কিলোমিটার ওয়াপদার বেড়ি বাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ। তার মধ্যে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ৭০ কিলোমিটার। দক্ষিণাঞ্চলকে বাঁচানোর জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাইকগাছার আলমতলায় প্রথম বেড়িবাঁধ উদ্বোধন করেছিলেন। তারপর এ পর্যন্ত আর নতুন কোনো বেড়িবাঁধ তৈরি করা হয়নি। তাই নেদারল্যান্ডের আদলে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন জানাচ্ছি। পাইকগাছা কয়রার মানুষ ত্রাণ চায় না, টেকসই বেড়িবাঁধ চায়।

তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে নেত্রী কয়েকটি প্রকল্প দিয়েছেন। আপনারা যারা এ অঞ্চলের মানুষকে বাঁচানোর জন্য স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করে ঘাম ঝরিয়েছেন তাদের সালাম ও শুভেচ্ছা জানায়। টাকা দিয়ে আপনাদের শ্রমের দাম দিতে পারবো না। দলমতের উর্দ্ধে উঠে বাঁচার তাগিদে একসঙ্গে কাজ করে পানিবন্দি মানুষকে বাঁচাতে হবে। রোববার দুপুরে সোলাদানা ইউনিয়নের পাটকেলপোতা নারিকেলতলা ঝুকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ মেরামতকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আনোয়ার ইকবাল মন্টু, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল মান্নান গাজী, আওয়ামী লীগ নেতা আবুল বাশার বাবুল সরদার, আব্দুস সালাম কেরু, পঞ্চানন সানা, আইয়ুব আলী সানা, তপন কুমার বাইন, বিমল চন্দ্র সরদার, রবীন্দ্রনাথ রায়, দিলিপ চন্দ্র ঢালী, বি,এম, আরেফনি, রাজেশ মন্ডল, শাহাবুদ্দীন শাহীন, প্রভাষক ময়নুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা আজিজুল হাকিম, আবু সাঈদ মোড়ল কালাই, আকরামুল ইসলাম, মোমিন ফকির, কে.ডি বাবু, মৃগাঙ্গ রায়, ছাত্রনেতা আফি আজাদ বান্টি, পার্থ প্রতীম চক্রবর্তী, রায়হান পারভেজ রনি, প্রকাশ মন্ডল, সালাহউদ্দীন কাদের, অহিদুর রহমানসহ সহস্রাধিক আ’লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বাঁধের কাজে অংশ নেয়।